‘অশ্লীল’ সিনেমার প্রযোজক প্রিয়াঙ্কা?

priyanka-Chopra

১৭ জুন ২০১৬ (মুন্সিগঞ্জ নিউজ ডেস্ক) : ভারতীয়দের জন্য প্রিয়াঙ্কা চোপড়া এখন এক গর্বের নাম। আন্তর্জাতিক অঙ্গনে একের পর এক সাফল্য তাকে পরিণত করেছে ‘দেশরত্ন’তে। তবে শোনা যাচ্ছে, প্রিয়াঙ্কা প্রযোজিত এক ভোজপুরি সিনেমায় দেখা গেছে অবাধ অশ্লীলতা।

‘বাম বাম বোল রাহা হ্যায় কাশি’ নামের এই সিনেমার বিরুদ্ধে উঠেছে অশ্লীলতার অভিযোগ। যেটা প্রযোজনা করেছেন পিসি। কুরুচিপূর্ণ ভাষা এবং অশ্লীল দৃশ্যের কারণে শুক্রবার মুক্তি পাওয়া সিনেমাটি নিয়ে সমালোচনায় মেতেছে পুরো ভারত।

বিশেষ করে সিনেমায় প্রিয়াঙ্কার সম্পৃক্ততা আরও ক্ষেপিয়েছে অনেককে। এরকম বাজে একটি সিনেমার প্রযোজক হিসেবে প্রিয়াঙ্কাকে মেনে নিতে পারছেন না কেউ।

বর্তমানে মুম্বাইয়ের বাসিন্দা প্রিয়াঙ্কার আদিবাড়ি বিহারে, সেখানকার ভাষা হল ভোজপুরি।

জাতীয় পুরস্কার বিজয়ী পরিচালক নিতিন এন চান্দ্রা সরাসরি প্রশ্ন তুলেছেন প্রিয়াঙ্কার পদ্মশ্রী খেতাব অর্জন নিয়ে। ‘ডিএনএ’কে দেওয়া এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, “যখন ভোজপুরি ভাষা বিলুপ্তি এড়ানোর জন্য লড়ে যাচ্ছে, প্রিয়াঙ্কা শুধু নিজেরই মর্যাদা হানি ঘটাননি, এরকম একটি সিনেমার প্রযোজনা করে নিজের পদ্মশ্রী পদক অর্জনকেও কলঙ্কিত করেছেন।”

এরকম রুচিহীন সিনেমার সঙ্গে নিজের নাম জড়িয়ে নিজেরই অপমান বয়ে এনেছেন প্রিয়াঙ্কা, এমনই কড়া সমালোচনা নিয়ে ফেইসবুকে বিস্তারিত একটি লেখা পোস্ট করেছেন পাটনার সমাজকর্মী কুনাল দত্ত।

তিনি লেখেন, “এই নোংরা সিনেমাটি প্রযোজনা করার সময় কী ভাবছিলেন আপনি?

এতকিছুর পরও আপনাকে আমার কিছু বলার নেই। তবে আমি বিহারীদের কাছে জানতে চাই, জনসম্মুক্ষে এভাবেই আপনাদের ভাষা আর সংস্কৃতির বেহাল দশা আর ক্ষতি হতে দেখবেন নাকি উঠে দাঁড়িয়ে প্রতিবাদ করবেন?”

প্রিয়াঙ্কাকে বর্জনের ডাকও দিয়ে বসেছেন কুনাল।
আরও লেখেন, “এই সিনেমাসহ প্রিয়াঙ্কা অভিনীত পরের সব সিনেমা কি বর্জন করা যায় না? শহুরে ‘সভ্য সমাজ’ ও বলিউডের কুরুচিপূর্ণ কিছু সিনেমাকেও ‘বিরাট বিনোদন’ এর উপাদান বানিয়ে আমাদের সামনে হাজির করে। কিন্তু এ ব্যাপারটি আসলেই জঘন্য।”

প্রিয়াঙ্কা এখন পুরো ভারতবাসীর কাছেই একজন ‘আইকন’। কিন্তু এরকম একটি সিনেমায় কাজ করে নিজেদের মর্যাদা খুইয়েছেন প্রিয়াঙ্কা, দাবী কুনালের।

অবশ্য সমালোচকদের এসব দাবী মানতে একটুও রাজি নন প্রিয়াঙ্কা। যি মিডিয়া ব্যুরো বলছে, কিছু ঘনিষ্ঠ দৃশ্যকে আঞ্চলিক সিনেমার অংশ হিসেবেই দেখছেন পিসি।

‘হিন্দি সিনেমায় কি অশ্লীলতা থাকে না? ব্যক্তিগতভাবে আমি এই ধরনের মসলাদার সিনেমা পছন্দ করি। আমি চাই আঞ্চলিক ভাষার চলচ্চিত্র ভালো পরিচিতি পাক।’ বলেন প্রিয়াঙ্কা।

প্রযোজক হিসেবে এই সিনেমার মাধ্যমেই অভিষেক হয়েছে এই আন্তর্জাতিক তারকার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here