টঙ্গীবাড়ীতে কলেজ ও স্কুল শিক্ষার্থী দুইবোন গৃহবন্দি

DSC04229 copy

খান আবু বকর সিদ্দীক, ১৭ জুন ২০১৬ (মুন্সিগঞ্জ নিউজ ডটকম) : টঙ্গীবাড়ীতে বখাটেদের ভয়ে বাড়ি থেকে বের হতে পারছে না কলেজ ও স্কুল পড়ুয়া দুই বোন। বখাটেদের ধাওয়ায় এবার এইচএসসি পরীক্ষার শেষ দিনে কৃষি বিজ্ঞান বিষয়ের শেষ পরীক্ষাটি দিতে কেন্দ্রে যেতে পারেনি বিটি কলেজের ছাত্রী ইয়ানুর আক্তার অধরা (১৮)।

উপজেলার বড়লিয়া গ্রামের মোতালেব শিকদারের দুই মেয়ে ইয়ানুর আক্তার অধরা ও শিরিন আক্তার (১৬)। শিরিন টঙ্গীবাড়ী পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেণির ছাত্রী।

এলাকাসূত্রে জানা গেছে, মোতালেব শিকদার (৬০) ১০ বছর আগে পদ্মার নদী ভাঙ্গন এলাকা থেকে এসে স্ত্রী সন্তানদের নিয়ে বড়লিয়া গ্রামে জমি কিনে বসবাস করছেন।

অধরা ও শিরিন জানায়, কলেজ ও স্কুলে যাওয়ার পথে ওই এলাকার প্রভাবশালী হাবিব ঢালীর বখাটে পুত্র জনি (২৩), জসীম (২৫) ও কাবিলা ঢালীর ছেলে রাসেলসহ (২৪) কয়েকজন মিলে প্রায়ই তাদের গতিরোধ করে প্রেমের প্রতিশ্রুতি আদায় করতে চেষ্টা করে।

এ ঘটনায় এলাকায় কয়েকবার সালিশ বৈঠক হলে বখাটেরা আরো ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে।

এ বছর এইচএসসির শেষ পরীক্ষা দিতে বাড়ি থেকে রাস্তায় বের হলে বখাটে জনি রামদা নিয়ে অধরাকে ধাওয়া করে। অধরা ভয়ে দৌড়ে বাড়িতে এসে ঘরে ঢুকে দরজা লাগিয়ে চিৎকার দেয়।

বাবা মোতালেব ও মা ফাতেমা বেগম (৫৫) এর প্রতিবাদ করলে দুজনকে মারপিট করে আহত করলে তাদের মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এ ঘটনায় মুন্সীগঞ্জ জুডিসিয়াল আদালতে মামলা করলে বিচারক তার তদন্তের ভার টঙ্গীবাড়ী থানায় পাঠালেও কোন অগ্রগতি হচ্ছেনা বলে জানান মামলার বাদী মোতালেব শিকদার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here