অপহরণের দেড় মাস পর টঙ্গীবাড়ীতে মাদ্রাসা ছাত্রী উদ্ধার

map-of-munshiganj-মুন্সিগঞ্জের-মানচিত্র

খান আবু বকর সিদ্দীক, ২৬ জুলাই ২০১৬ (মুন্সিগঞ্জ নিউজ ডটকম)  গৌড়িপুর থেকে অপহরণ করে আনার দেড় মাস পর খাদিজা (১৪) নামের এক মাদ্রাসা ছাত্রীকে টঙ্গীবাড়ীতে উদ্ধার করা হয়েছে। তার সঙ্গে অপহরণকারী এক নারীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

২৫জুলাই সোমবার রাত ১১ টায় টঙ্গীবাড়ী উপজেলার বলই গ্রামের রফিজ ঢালীর বাড়ি থেকে খাদিজাকে উদ্ধার করে তার তথ্য অনুযায়ী একই উপজেলার সোনারং গ্রাম থেকে আবু সাইদ মল্লিকের স্ত্রী তানিয়া বেগম(৪০)কে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

অপহৃত খাদিজা ময়মনসিং জেলার গৌড়িপুর উপজেলার হাসনপুর গ্রামের কামাল মিয়ার মেয়ে ও হাসনপুর দাখিল মাদ্রাসার নবম শ্রেণির ছাত্রী। গত ৪ঠা জুন মাদ্রাসা ছুটি হওয়ার পর খাদিজা বাড়িতে না ফিরলে তার বাবা গৌড়িপুর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে খাদিজার বাবার চাচাত ভাই মান্নানের জোগসাজে তানিয়া ও তার পালিত মেয়ে ফাতেমা খাদিজাকে অপহরণ করে দেড় মাস যাবত টঙ্গীবাড়ী উপজেলার বিভিন্ন স্থানে আটকিয়ে রাখে। সর্বশেষে ঈদের আগের দিন রাতে তানিয়া তার নিকট আত্মীয় উপজেলার বলই গ্রামের রফিজ ঢালীর বাড়িতে কাজের মেয়ে বলে খাদিজাকে কয়েক দিনের জন্য রেখে আসে।

রফিজ ঢালীর ভাগ্নে রোবেলের সহযোগিতায় খাদিজা তার বাবাকে গতকাল ফোন করলে কামাল মিয়া টঙ্গীবাড়ী থানায় এসে পুলিশের সহযোগিতা চায়। টঙ্গীবাড়ী থানার এসআই সাখাওয়াত হোসেন জানান কামালের তথ্য অনুযায়ী খাদিজাকে উদ্ধার ও অপহরণকারী দলের মূল হোতা তানিয়াকে গ্রেপ্তার করে থানায় আনা হয়েছে।

তানিয়া জানায় মাদ্রাসা থেকে ফেরার সময় তার চাচা তাকে শ্যামগঞ্জের কথা বলে ময়মনসিংহে নিয়ে আসে। তানিয়া ও ফাতেমা চাচার আত্মীয় বলে রাতের ট্রেনে তাদের হাতে সে উঠিয়ে দেয়। পথ ভুলিয়ে তাকে তানিয়া টঙ্গীবাড়ী এনে বিভিন্ন জায়গায় ভয়ভীতি দেখিয়ে এতো দিন আটকিয়ে রেখেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here