বিক্রমপুরের আলোকিত ব্যক্তিত্ব ফাতেমা বেগম

14469534_10202206351197107_2606329003561780376_n

২৩ সেপ্টেম্বর  ২০১৬ (মুন্সিগঞ্জ নিউজ ডেস্ক) : শাসকগোষ্ঠীর কারণেই রাষ্ট্রে সাংস্কৃতিক ও ধর্মীয় পরিবর্তন ঘটে যায়। এটা আমাদের ভূখন্ডে ঘটেছে অনেক বেশি।

সম্রাট অশোক বৌদ্ধধর্ম গ্রহণের পরেই ভারতবর্ষ জুড়ে বৌদ্ধধর্মের ব্যাপক প্রসার ঘটে। বৌদ্ধ ধর্মানুসারী পাল শাসনামল পর্যন্ত বৌদ্ধদের প্রসার ঘটতে থাকে। কিন’ পালদের হটিয়ে যখনই বাংলায় হিন্দু সেন রাজারা ক্ষমতা দখল করে তখন আবার চিত্র বদলে যায়।

বৌদ্ধরা হিন্দু হয়ে যায় অথবা পালাতে থাকে নিজ ধর্ম রক্ষার জন্য। ফলে বঙ্গে বৌদ্ধরা সংখ্যালঘু হয়ে যায়। আবার মুসলিম শাসন শুরু হলে, মুসলমানদের সংখ্যা বাড়তে থাকে, বৌদ্ধ শূন্য হয়ে যায়, হিন্দুর সংখ্যাও কমতে থাকে।

ইংরেজ আমলে কিছু মানুষ খ্রীস্টানও হয় তবে সংখ্যা বেশি নয়। এসময়ই মূলত মুসলমানদের সংখ্যাই বেশি বাড়তে থাকে মূলত হিন্দুদের ভিতরের জাত-পাতের সমস্যার কারণে।

বাংলাদেশেও হঠাৎ করেই বোরকাপড়া নারীর সংখ্যা চোখে পড়ার মতো কমে গেছে বলেই মনে হচ্ছে। এটা হয়েছে সাম্প্রতিক জঙ্গী হামলা ও সরকারের জঙ্গীবিরোধী কঠোর অবস’ানের কারণেই।

নারীরা যে নিজেরা বোরকা পড়তে খুব বেশি চায় না এটারও বহিপ্রকাশ এটা। সাধারণত স্বামী-শ্বশুরের চাপেই পড়তো, কেউ পিতা-মাতা-শ্বাশুড়ির চাপে। এখন স্বামী-শ্বশরেরা, পিতা-মাতা-শ্বাশুড়িরা সেই চাপটা কমিয়ে দিয়েছেন বলেই সমাজে এই পরিবর্তনটা চোখে পড়ছে। এখন দেশে ৯জন নারী জেলা প্রশাসক রয়েছেন। চাকুরিতে ঢুকছেন বিপুল সংখ্যক নারী। তারাও সমাজ বদলে ভূমিকা রাখছেন। ছবিটি পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা ফাতেমা বেগম এর (প্রয়াত সাংবাদিক সফিউদ্দিন আহমেদের পুত্রবধূ)।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here