শ্রীনগরে রহস্যজনক শ্রমিকের মৃত্যু: পুলিশকে না জানিয়ে তরিঘড়ি করে দাফন!

বৃহস্পতিবার, ১৯ জুলাই ২০১৮, মুন্সিগঞ্জ নিউজ ডটকম:

শ্রীনগরে রহস্যজনক শ্রমিকেরশ্রীনগরে ইউপি চেয়ারম্যানের অবৈধ ডক ইয়ার্ডে এক নির্মাণ শ্রমিকের রহস্য জনক মৃত্যু হয়েছে। অবৈধ ডক ইয়ার্ডে এই রহস্য জনক মৃত্যুর ঘটনার পর পরই পুলিশকে না জানিয়ে তড়িঘড়ি করে লাশ দাফনের অভিযোগ উঠেছে।

স্থানীয়রা জানায়, গত বুধবার রাত ১২টার দিকে উপজেলার ভাগ্যকুল ইউনিয়ন পরিষদ ও উপস্বাস্থ্য কেন্দ্র সংলগ্ন ফজলুল হক মেটাল নামের একটি অবৈধ জাহাজ নির্মান কারখানায় কর্মরত মোবারক ফকির (৩৫) নামের এক শ্রমিকের মৃত্যু হয়। মৃত্যুর পর জাহাজ নির্মান কারখানার মালিক পক্ষ দাবী করেন মোবারক ফকির বিদ্যুৎ স্পৃষ্টে মারা গেছে।

অপর দিকে মোবারকের সহ কর্মীরা জানান, এর আগের দিন চাকুরী ছেড়ে দেওয়া নিয়ে মোবারকের সাথে মালিক পক্ষের ঝগড়া হয়। পরদিন রাতেই মোবারকের মৃত্যু হওয়ায় এবং পুলিশকে না জানিয়ে তড়িঘড়ি করে লাশ মাটি দেওয়ায় রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে।
ভাগ্যকূল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শাহাদাতের মালিকানাধীন ফজলুল হক মেটাল নামের প্রতিষ্ঠানটি বৈধ কাগজ পত্র ছাড়াই দির্ঘদিন ধরে ওই এলাকায় জাহাজ নির্মান করে আসছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

শ্রীনগরে রহস্যজনক শ্রমিকের 1মুন্সিগঞ্জ পরিবেশ অধিদপ্তরের সিনিয়র কেমিষ্ট মোঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, ডকইয়ার্ডটির ছাড় পত্রের মেয়াদ ২০১৩ সালের সেপ্টেম্বর মাসে শেষ হয়ে গেছে। ১৫ দিন আগে পরিদর্শন করে দেখেছি খোলা স্থানে জাহাজ নির্মাণ করা হচ্ছে। বৈদ্যুতিক সংযোগ খুবই ঝুকি পূর্ণ।

তাছাড়া প্রতিষ্ঠানটির ১০০ গজের মধ্যে ইউনিয়ন পরিষদের ভবন, ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কেন্দ্র এবং দুটি বিদ্যালয় রয়েছে। আবাসিক এলাকায় কোন ভাবেই এরকম প্রতিষ্ঠানের ছাড়পত্র নবায়নের সুযোগ নেই।

শ্রীনগর ফায়ার সার্ভিসের ষ্টেশন অফিসার আরিফুল ইসলাম জানান, ঝুকিপূর্ণ শিল্পে ছাড়পত্র দেওয়ার কোন সুযোগ নেই। পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি শ্রীনগর উপজেলার ডিজিএম মোঃ মিজানুর রহমান জানান, আমি এই কর্মস্থলে নতুন হওয়ায় বিষয়টি সম্পর্কে অবগত নই। তবে সরজমিনে পরিদর্শন করে কোন ত্রুটি পরিলক্ষিত হলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ডকইয়ার্ডের মালিক ভাগ্যকূল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কাজী মনোয়ার হোসেন শাহাদাৎ দাবী করেণ তার ডকইয়ার্ডের সমস্ত কাগজপত্র নবায়ন করা রয়েছে। শ্রমিক মোবারক কাজ করতে গিয়ে বিদ্যুৎ স্পৃষ্টে মারা গেছে।

শ্রীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ এসএম আলমগীর হোসেন জানান, পুলিশকে অবহিত করার আগেই লাশ মাটি দেওয়া হয়েছে। বিষয়টি সম্পর্কে আমরা খোঁজ নিচ্ছি।

শ্রীনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ জাহিদুল ইসলাম বলেন, ডক ইয়ার্ডের প্রয়োজনীয় কাগজপত্র না থাকলে ও ঝুকিপূর্ণ হলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here