প্রাচীন মুসলিম নগরী আব্দুল্লাপুর

সব মানুষের সৃজন প্রয়াসী অনলাইন পোর্টাল:

বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০১৯, মুন্সিগঞ্জ নিউজ ডটকম:

গোলাম আশরাফ খান উজ্জ্বল

Bridge-over-the-Mir-Kadim-Canal-Munshigonj

আব্দুল্লাপুর। মুন্সিগঞ্জ জেলার টঙ্গীবাড়ি উপজেলার একটি বাজার। এ বাজার খানি টঙ্গীবাড়ির একেবারে উত্তর সীমান্তে অবস্থিত।

আব্দুল্লাপুর একটি গ্রাম। এ গ্রামের নামেই আব্দুল্লাপুর ইউনিয়নের নাম। গ্রামটি অতি প্রাচীন। এ নামটি একজন মুসলমান সেনপতির নামানুসারে।

তিনি কোন সুলতান বা স¤্রাটের সেনাপতি ছিলেন তা আমাদের জানা নেই। তবে আব্দুল্লাপুর গ্রামের একেবারে দক্ষিণ পাশে একটি প্রাচীন মসজিদের অস্তিত্ব লক্ষ্য করা যায়।

মসজিদটির আয়তন একেবারেই ছোট। তবে এক গম্বুজ বিশিষ্ট। এ মসজিদের পূর্ব-দক্ষিণ কোনে দে বাড়ির মাটি খননের সময় একটি প্রাচীন কবর আবিস্কার হয়।

কেউ কেউ এ কবরটি শেখ আব্দুল্লাহর কবর বলে অনুমান করে থাকেন। কবরটি আয়তনে অনেক বড়। আব্দুল্লাপুরের এ প্রাচীন মসজিদটি সি.এস. পর্চায় চিহ্নিত আছে।

আব্দুল্লাপুর গ্রামটি কত প্রাচীন? কেউ মনে করেন, এ নামটি বল্লাল সেন যুগের। আবার কারো কারো অভিমত, আব্দুল্লাহ তুর্কি সেনাপতি, তার নামানুসারে গ্রামের নাম।

আব্দুল্লাপুর নামটি সুলতানী অথবা মোগল যুগের। আব্দুল্লাপুরের বাসিন্দা পন্ডিত শ্যামসুন্দর গোপ (৭০) তিনি জানান, আব্দুল্লাপুরের প্রাচীন নাম জোয়ার খোদেদাদপুর ওরফে আব্দুল্লাপুর। তুর্কি সেনাপতি আব্দুল্লার নামানুসারে আব্দুল্লাপুর। এখানে একটি বাজার রয়েছে। একটি হাইস্কুল, একটি মাদ্রাসা, দুটি প্রাথমিক বিদ্যালয় সহ কয়েকটি মসজিদ রয়েছে।

আব্দুল্লাপুর গ্রামের পূর্ব পাশে মিরকাদিম বন্দর। এখানে ১৫৬৯ খ্রিষ্টাব্দে টেঙ্গর নামক স্থানে একটি মসজিদ স্থাপন করেন সুলেমান খান কররানী। এ মসজিদের শিলালিপিতে মিয়া আব্দুল্লাহ নামে একজন শাসকের নাম পাওয়া যায়। খুব সম্ভবত মিয়া আব্দুল্লাহর নামানুসারেই আব্দুল্লাপুর গ্রামের নাম হয়েছে। আমার মনে হয়েছে, গ্রামটি ১৫৪৫-১৫৫৫ খ্রিষ্টাব্দের মধ্যে প্রতিষ্ঠিত। এখানকার প্রাচীন কয়েকটি বাড়ির ভিতরের ডিজাইন মোগল যুগের বলে মনে হয়। এ গ্রামে ১১৭৮ খ্রিষ্টাব্দে মহারাজ বল্লাল সেনের সাথে বাবা আদম শহীদ (রহ:) যুদ্ধ হয়েছিল। এ গ্রামে একটি প্রাচীন পাঠাগার রয়েছে।

যে পাঠাগার বিজ্ঞানি ড. কুদরাত-ই-খুদা, পল্লী কবি জসিম উদ্দীন ও ভারতের ড. মহানাম ব্রহ্মচারী এম.এ এসেছিলেন।

১৯৪৬ সালে পাঠাগারটি প্রতিষ্ঠা লাভ করে। এ গ্রামের দক্ষিণ পাশে একটি পাঁকা ব্রিজ রয়েছে। ব্রিজটির নাম

AMA RAHIM BRIDGE এ.এম.এ রহিম মুন্সিগঞ্জের সাবডিভিশনাল অফিসার ছিলেন। তিনি এ ব্রিজটি ২৪ জুলাই ১৯৬৪ সালে নির্মাণ করেন। যে রাস্তাটি আব্দুল্লাপুর বাজার থেকে টঙ্গীবাড়ী পর্যন্ত চলে গেছে। সে রাস্তাটির নামও

AMA RAHIM ROAD বা সড়ক। সবকিছু মিলিয়ে আব্দুল্লাপুর একটি প্রাচীন মুসলিম নগরী।

তথ্য: রাজেন বনিক-বিক্রমপুরের একটি গ্রাম (কলকাতা)।
* ব্রিজের গাঁয়ে প্রথিত শিলালিপি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here