গজারিয়ায় স্ত্রী-শ্বশুর-শ্যালকের নির্যাতনে শিক্ষকের মৃত্যু!

সব মানুষের সৃজন প্রয়াসী অনলাইন পোর্টাল:

শনিবার, ৮ জুন ২০১৯, মুন্সিগঞ্জ নিউজ ডটকম:

image-185561-1560003040গজারিয়া উপজেলায় স্বামী-স্ত্রীর সঙ্গে ঝগড়ার জের ধরে স্ত্রী, শ্বশুর ও শ্যালকের মারধরে সোলায়মান ফরাজী (৩০) নামের এক স্কুল শিক্ষকের মৃত্যু হয়েছে। তবে তার পেটে বিষ পাওয়া যায়।

শুক্রবার দিবাগত রাতে উপজেলার বালুয়াকান্দি ইউনিয়নের আতিকনগর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

সোলায়মান ফরাজী ওই গ্রামের আবদুল মালেক ফরাজীর ছেলে। তিনি কুমিল্লার মেঘনা উপজেলার ফুলতলী মোজাফফর আলী হাই স্কুলের সহকারী শিক্ষক ছিলেন।

সম্প্রতি ফুলতলী গ্রামের স্কুল শিক্ষক সোলায়মান ও মনসুর আলী সরকারের মেয়ে মহাসীনা সরকারের মধ্যে প্রেমের সম্পর্কে বিয়ে হয়।

সোলায়মানের বড় ভাইয়ের স্ত্রী শাহজাদী জানান, শুক্রবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে আতিকনগর গ্রামের নিজ বাড়িতে স্কুল শিক্ষক সোলায়মান ফরাজী ও তার স্ত্রী মহাসীনা সরকারের মধ্যে ঝগড়া হয়।

খবর পেয়ে শ্বশুর মুনসুর সরকার ও শ্যালক মহিববুল্লাহকে মোবাইলে ফোন করে স্ত্রী মহাসীনা।

শ্বশুর, শ্যালক ও স্ত্রী মিলে স্কুল শিক্ষক সোলায়মানকে বেধম মারধর করে। এমনকি রড দিয়েও পিটায়, এতে সোলায়মান রক্তাক্ত জখম হয়। মারামারি থামানোর চেষ্টা করেও পারিনি। পরবর্তীতে সোলায়মান পানি খেতে চাইলে স্ত্রী মহাসীনা পানি দেয়। পানি খেয়েই সোলায়মান বমি করে অজ্ঞান হয়ে পড়ে। পরে সোলায়মানের স্ত্রী, শ্বশুর ও শ্যালক পালিয়ে যায়। তবে তার পেটে বিষ পাওয়া যায়।

শুক্রবার রাত ১১টায় গজারিয়া উপজেলা হাসপাতালে নেয়ার পরে কর্তব্যরত চিকিৎসক বিষমুক্ত করে ঢাকা মেডিকেলে স্থানান্তর করে। পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে রাত সাড়ে ১২টার দিকে সেখানকার কর্তব্যরত ডাক্তার মৃত ঘোষণা করেন।

তিনি জানান, সোলায়মানকে গজারিয়া হাসপাতালে নেয়ার সময় বলে, আমাকে আর হাসপাতালে নিয়ে লাভ নেই। সোলায়মান যদি আত্মহত্যা করে তবে বিষ পেলো কোথায়?

এদিকে সোলায়মানের শ্বশুরবাড়িতে গিয়ে কাউকে পাওয়া যায়নি।

ঢামেকের মর্গে ময়নাতদন্ত শেষে স্কুল শিক্ষকের লাশ শনিবার বিকালে গ্রামের বাড়িতে এনে জানাজা শেষে দাফন করা হয়েছে।

গজারিয়া থানার ওসি মোহাম্মদ হারুন-অর-রশিদ জানান, রাত সাড়ে ৯টার দিকে আতিকনগর গ্রামের নিজ বাড়িতে স্কুলশিক্ষক সোলায়মান ফরাজী ও তার স্ত্রী মহাসীনা সরকারের মধ্যে ঝগড়া হয়। খবর পেয়ে শ্বশুরবাড়ির লোকজন ছুটে এসে স্কুলশিক্ষক সোলায়মানকে মারধর করে।

এ ঘটনায় গজারিয়া থানায় কেউ অভিযোগ দেয়নি। তবে আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগে মামলা দায়েরর প্রস্তুতি চলছে।

যৃগান্তর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here