শ্রীনগরে নির্যাতনের শিকার গৃহবধু জিয়াসমিন ঢামেকের বার্ণ ইউনিটে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে

সব মানুষের সৃজন প্রয়াসী অনলাইন পোর্টাল:

শনিবার, ৮ জুন ২০১৯, মুন্সিগঞ্জ নিউজ ডটকম:

62186822_1160260097515983_712144988296708096_nশ্রীনগরে স্বামীর নির্যাতন সইতে না পেরে গায়ে আগুন দিয়ে আত্মহননের চেষ্টাকারী গৃহবধু জিয়াসমিন এখন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ণ ইউনিটে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে।

শুক্রবার দুপুরে শ্রীনগর উপজেলার শ্যামসিদ্ধি ইউনিয়নের সেলামতি গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। তাকে বার্ণ ইউনিটের ৩০ নম্বর ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়েছে। শনিবার দুপুরে জিয়াসমিনের পারিবারের লোকজন জানায়, তার অবস্থা খারাপের দিকে যাচ্ছে।

শ্রীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ ইউনুচ আলী জানান, ঘটনার পর থেকে জিয়াসমিনের স্বামী সহ পরিবারের লোকজন পলাতক রয়েছে। শনিবার বিকালে মুন্সিগঞ্জ জেলার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলম পিপিএম ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (শ্রীনগর সার্কেল) মোঃ আসাদুজ্জামান ঘটনা স্থল পরিদর্শণ করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের নির্দেশ দিয়েছেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শ্রীনগর উপজেলা শ্যামসিদ্ধি ইউনিয়নের সেলামতি গ্রামের সিরাজুল ইসলাম তার স্ত্রী জিয়াসমিন (৪০) এর উপর শারীরীক ও মানসিক নির্যাতন চালায়। স্বামীর নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে সে গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। প্রতিবেশীরা উদ্ধার কারার আগেই তার গায়ের বেশীর ভাগ অংশ ঝলসে যায়।

জিয়াসমিনকে শ্রীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক আশংকাজনক অবস্থায় তাকেঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের র্বাণ ইউনিটে প্রেরণ করেন।

জিয়াসমিন কোলাপাড়া ইউনিয়নের ব্রাক্ষ¥ন পাইকসা গ্রামের মৃত আঃ আজিজ চৌধুরীর মেয়ে। প্রায় ২৩ বছর পূর্বে সেলামতি গ্রামের সিরাজুল ইসলামের সাথে তার বিয়ে হয়। তাদের সংসারে প্রতিবন্ধী ১ মেয়ে ও মালয়েশিয়া প্রবাসী ১ ছেলে রয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here