মিরকাদিমের দ্বীন ইসলামের লিখিত অভিযোগ তদন্তে নেমেছে জেলা মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর

সব মানুষের সৃজন প্রয়াসী অনলাইন পোর্টাল:

মঙ্গলবার, ১১ জুন ২০১৯, মুন্সিগঞ্জ নিউজ ডটকম:

????????????????????????????????????

মুন্সিগঞ্জ সদর উপজেলার মিরকাদিম পৌর সভার নৈ-দিঘীরপাড়ের বাসিন্দা দ্বীন ইসলামের ৪৫ হাজার টাকা আত্মসাতের অভিযোগের পর দুই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে তদন্ত নেমেছে জেলা মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর।

লিখিতভাবে অভিযুক্তরা হলেন, অধিদপ্তরের পরিদর্শক মো. জয়নুল আবেদীন ও উপ পরিদর্শক মো. আশরাফুল আলম।

ভুক্তভোগি দ্বীন ইসলাম জানিয়েছেন, ঘটনার পর অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক এস. এম সাকিব হোসেনের কাছে আমি ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করি। অভিযোগের পর ঐদিনই সন্ধ্যার দিকে তাঁরা সরেজমিনে গিয়ে তদন্ত করে ঘটনার সত্যতা পান। পরে তিনি ৪৫ হাজার টাকা ফিরিয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেন দ্বীন ইসলামকে।

এ ঘটনার তদন্তের বিষয়য়ে প্রতিবেদকের সাথে কথা হয় জেলা মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরে সহকারী পরিচালক এস. এম সাকিব হোসেনের। তিনি বলেছেন, লিখিত অভিযোগ পাওয়ার পর সন্ধ্যায় সরেজমিনে তদন্ত করি। কিন্তু টাকা নেওয়ার বিষয়ে এখনো তদন্ত চলছে। এ ব্যাপারে আমার দপ্তরের উর্ধতন কর্মকর্তাদের কাছে বলেছি। তারা অভিযোগ কারিদের বিরুদ্ধে তদন্ত করে অভিযোগ প্রমাণিত হলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিবেন।

তিনি আরো বলেছেন, দ্বীন ইসলামের ছেলে তৃতীয় লিঙ্গ (হিজড়া) দীলরাজের বিরুদ্ধে একাধিক মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরে মামলা রয়েছে।

উল্লেখ গত সোমবার সকাল ৬ টার দিকে রিকাবী বাজারের নৈ-দিঘীপাড়ের বাসিন্দা দ্বীন ইসলামের বাসায় মাদক রাখার সন্দেহে অভিযান পরিচলনা করেন। এ সময় দ্বীন ইসলামরে মেয়ের বিয়ের জন্য রাখা ৪৫ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয় মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের দুই কর্মকর্তা। পরে দ্বীন ইসলামের স্ত্রীর শহর বানুকে মারধর করে বলে অভিযোগ উঠেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here