ইউপি সদস্যের নির্দেশে শ্রীনগরে সালিশ বৈঠকে যুবককে সিগারেটের আগুনে ছ্যাঁকা

সব মানুষের সৃজন প্রয়াসী অনলাইন পোর্টাল:

বৃহস্পতিবার, ১১ জুলাই ২০১৯, মুন্সিগঞ্জ নিউজ ডটকম:

lauccccccccশ্রীনগরে সালিশ বৈঠকে এক ইউপি সদস্যের নির্দেশে যুবককে সিগারেটের আগুনে ছ্যাঁকা ও লাঠি পেটার ভিডিও দৃশ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরালে পরিণত হয়েছে।

গ্রাম্য সালিশ বৈঠকের ওই ভিডিও ফুটেজে দেখা যায়, সালিশ বৈঠকে ইউপি সদস্য কালাম মেম্বারের নির্দেশে এক ব্যক্তি একটি সিগারেট জালিয়ে মেম্বারের হাতে দেয়। সেই জলন্ত সিগারেট কালাম মেম্বার অন্য এক ব্যাক্তির হাতে দিয়ে মনির নামে এক যুবকের পিঠে ছ্যাঁকা দিতে বলে।

এর পর সকলের সামনে মনিরের পিঠে জলন্ত সিগারেটের ছ্যাঁকা দেয়। গত ২ জুলাই মঙ্গলবার শ্রীনগর উপজেলার রাঢ়ীখাল ইউনিয়নের কবুতর খোলা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। মনিরের ভাই আনোয়ার হোসেন অভিযোগ করে বলেন, গত ১ লা জুলাই সোমবার লৌহজং উপজেলার মেদিনী মন্ডল ইউনিয়নের যশলদিয়া গ্রামের নুরবাগ ইসলামিয়া মাদ্রাসার ছাত্র সিয়ামকে আইসক্রিম দেওয়ার লোভ দেখিয়ে মনির ও হান্নান বাড়ির অদুরে পদ্মা পাড়ে কাঁশ বনে নিয়ে যায়।

সেখানে তারা দুজন সিয়ামকে সিগারেট খেতে বলে। কিন্ত এতে সিয়াম রাজি না হওয়ায়। সিয়ামের পিঠে মেরুদন্ড বরাবর জলন্ত সিগারেটের আগুনে ছ্যাঁকা দেয়। এই অভিযোগে ইউপি সদস্য কালাম মেম্বারের নেতৃত্বে তার নিজস্ব স্ব-মিলে গ্রাম্য শালিস বৈঠক বসে। সালিশে অভিযুক্ত মনিরকে প্রকাশ্যে ২০ টি বেতের বাড়ি,৬ বার জলন্ত সিগারেটের আগুনের ছ্যাঁকা, ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এছারা ৩ দিনের মধ্যে গ্রাম ছেড়ে অন্যত্র চলে যাওয়ার নির্দেশ দেয়।

মনিরের ভাই আনোয়ার হোসেন আরো বলেন, সালিশ বৈঠকের সব সিদ্ধান্ত মেনে নিয়ে চলে আসলেও পরে অভিযুক্ত মনিরের নামে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন সংশোধনী ২০০৩,৪ এর ২(খ)ধারায় সিয়ামের মা রহিমা বেগম বাদী হয়ে লৌহজং থানায় একটি মামলা করেন। পুলিশ মনিরকে গ্রেফতার করে হাজতে প্রেরন করে।

গ্রাম সালিশ বৈঠকে মনিরকে সিগারেটের ছ্যাকা, বেত দিয়ে মারপিট, ৫ হাজার টাকা জরিমানা ও গ্রাম ছাড়ার নির্দেশ বিষয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (শ্রীনগর সার্কেল) মোঃ আসাদুজ্জামানের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এ ধরনের ঘটনা ঘটে থাকলে, অভিযোগ পেলে তদন্ত পূর্বক কঠোর আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here