সিরাজদিখান উপজেলা অফিসে সাব-রেজিস্ট্রার নেই: রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার

সব মানুষের সৃজন প্রয়াসী অনলাইন পোর্টাল:

সোমবার, ১৫ জুলাই ২০১৯, মুন্সিগঞ্জ নিউজ ডটকম:

প্রায় পনেরো দিন ধরে সাব-রেজিস্ট্রার নেই সিরাজদিখান উপজেলা সাব-রেজিস্ট্রি অফিসে। ফলে বিপাকে পড়েছেন উপজেলার সাধারণ মানুষ। প্রায় প্রতিদিনই অর্ধশতাধিক জমির মালিক রেজিস্ট্রি করতে টাকা নিয়ে এসে সারা দিন বসে থেকে সন্ধ্যায় নিরুপায় হয়ে বাড়ি ফিরে যাচ্ছেন।

ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন জমির ক্রেতা-বিক্রেতারা। বেশি টাকা নিয়ে আসা-যাওয়া করায় নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন তাদের অনেকেই। এদিকে জমি রেজিস্ট্রি বন্ধ থাকায় রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার।

সিরাজদিখান সাব-রেজিস্ট্রার অফিস সূত্রে জানা যায়, ১ জুলাই হজে যাওয়ার ছুটি পেয়ে ছুটিতে যান উপজেলা সাব-রেজিস্ট্রার এবিএম নুর-উজ-জামান পলাশ। এরপর আর কোনো সাব-রেজিস্ট্রারকে এখানে নিয়োগ বা দায়িত্ব দেয়া হয়নি। তবে ৭ জুলাই ভারপ্রাপ্ত হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন মুন্সীগঞ্জ সদর সাব-রেজিস্ট্রার মাইকেল মহিউদ্দিন আবদুল্লাহ। জানা যায়, তিনিও এখন ছুটি পালন করছেন।

রোববার সরেজমিন সিরাজদিখান উপজেলা সাব-রেজিস্ট্রি অফিসে গিয়ে দেখা গেছে, বেশ কয়েকজন লোক জমি রেজিস্ট্রি করতে অফিসের সামনে দাঁড়িয়ে আছেন,

কিন্তু সাব-রেজিস্ট্রার না থাকায় কাজ হচ্ছে না। গত প্রায় দুই সপ্তাহ এখানে কোনো জমি রেজিস্ট্রি হয়নি বলে জানান তারা। রেজিস্ট্রি না থাকায় অলস সময় পার করছেন দলিল লেখক বা নকলনবিসরাও।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন নকলনবিস সাংবাদিকদেরকে বলেন, ‘নিয়মিত সময়ে আমাদের অফিসে মাসে ৮০০টি থেকে ১ হাজারটি রেজিস্ট্রি হয়। এতে সরকারের রাজস্ব আসে কয়েক কোটি টাকা। গত ১৫ দিন ধরে কোনো সাব-রেজিস্ট্রার না থাকায় রেজিস্ট্রি কমে গেছে, সরকারও বিপুল পরিমাণে রাজস্ব হারাচ্ছে।

উপজেলার কেয়াইন কুচিয়ামোড়া এলাকার অজিত কুমার ঘোষ বলেন, ‘আমি এলাকায় ২০ লাখ টাকায় জমি কিনেছি। টাকা নিয়ে জমিটি রেজিস্ট্রি করতে দু’দিন অফিসে গিয়ে ফিরে গেছি, কিন্তু করাতে পারিনি। এতগুলো টাকা নিয়ে রাস্তায় চলাটাও ঝুঁকিপূর্ণ।

উপজেলা দলিল লেখক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. আক্তার হোসেন বলেন, ‘জমি রেজিস্ট্রি হলে তার দলিল সম্পাদন করে আমরা জীবিকা নির্বাহ করি। এভাবে দিনের পর দিন রেজিস্ট্রি বন্ধ থাকলে আমরা কিভাবে চলব? সাব-রেজিস্ট্রার ছুটিতে থাকায় এবং ভারপ্রাপ্ত সাব-রেজিস্ট্রার না থাকায় বিপাকে পড়েছেন সাধারণ মানুষও। আমরা অবিলম্বে এ অফিসে সাব-রেজিস্ট্রার চাই।

যুগান্তর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here