সিরাজদিখানে বিএনপি নেতা কর্তৃক আওয়ামীলীগ পরিবারের উপর হামলার ঘটনায় মামলা

৯ আগস্ট ২০১৯, শুক্রবার, মুন্সিগঞ্জ নিউজ ডটকম:

suruj-member-15-augসিরাজদিখান উপজেলার বয়রাগাদী ইউনিয়ন বিএনপি স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি মোঃ জালাল উদ্দিন মন্ডল ও তার সন্ত্রাসী বাহীনির লোকজন লতব্দী ৭নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ সভাপতি ও ইউপি সদস্য মোঃ আওলাদ হোসেনের পুত্র রাকিবুল ইসলাম রাকিব এর উপর সন্ত্রাসী হামলা এবং তার কাছ থেকে ৩ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়ার ঘটনায় সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট সিরাজদিখান আমলী আদালত মুন্সিগঞ্জে ১১ জনকে আসামী করে একটি সি.আর মামলা দায়ের করেন ভুক্তভোগী পিতা মোঃ আওলাদ হোসেন । যার নং-১৮৭/১৯।

Komol-15-augমামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, গত ২৫ জুলাই বৃহস্পতিবার বিকাল অনুমান ৫ টার দিকে বাদী আওলাদ হোসেনের পুত্র রাকিবুল ইসলাম রাকিব নাহার কোল্ড ষ্টোরেজ সংলগ্ন তার পিতার ইট বালুর গদিঘর থেকে ইট,বালু ও অন্যান্য দ্রব্য সামগ্রী বিক্রি করে ৩ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা নিয়ে বাড়ী যাওয়ার পথে উপজেলার ভূইরা গ্রামের জালাল উদ্দিনের বাড়ীর সংলগ্ন রাস্তায় পৌঁছামাত্র আসামী জালাল উদ্দিন মন্ডল, সামসুল হক, শাহ আলম, বিল্লাল হোসেন, আনোয়ার মন্ডল, কামাল মন্ডল, সোহেল দেওয়ান, আরব আলী মোল্লা, মোঃ আলী মোল্লা, শাওন ও নূর আলম রাকিবুল ইসলাম রাকিবের পথরোধ করে মারপিট করে। মারপিটের এক পর্যায়ে মামলার ১০ নং আসামী শাওন তার কাছে থাকা ৩ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা জোর পূর্বক ছিনিয়ে নিয়া যায়। পরে স্থানীয় লোকজন আহত অবস্থায় রাকিবুল ইসলাম রাকিবকে স্থানীয় ভাবে প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান করে।

বয়রাগাদী ইউনিয়ন ১নং ওয়ার্ডের সাবেক ইউপি সদস্য ও বয়রাগাদী ইউনিয় বিকল্প ধারার সভাপতি মোঃ আলী জানান, আমি যতটুকু জানি অযথাই ছেলেটাকে মারধর করেছে তারা। জালাল মন্ডল আর আওলাদ মেম্বারের সাথে দলীয় ভাবে পূর্ব থেকেই বিরোধ ছিল। জালাল মন্ডল বিএনপি করে আর আওলাদ মেম্বার আওয়ামীলীগ করে। পূর্ব শত্রুতার জেরেই ছেলেটা আজ হামলা মামলার শিকার হলো। জালাল মন্ডলের বাহীনি প্রকৃতই একটা সন্ত্রাসী বাহীনি।

এ ব্যাপারে বয়রাগাদী ১নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য সামসুল ইসলাম বলেন, আমাদের বিরুদ্ধে আওলাদ মেম্বার কোর্টে যে মামলা করেছে তা সম্পূর্ণই মিথ্যা। বরংচ ঘটনার দিন আওলাদ মেম্বারের ছেলে সন্ত্রাসী বাহীনি এনে আমাদের বাড়ীঘর ভাংচুর লুটপাট করেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here