মুন্সিগঞ্জে আন্তর্জাতিক তথ্য অধিকার দিবস উদযাপিত

২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, শনিবার, মুন্সিগঞ্জ নিউজ ডটকম:

মুন্সিগঞ্জে আন্তর্জাতিক তথ্য অধিকার দিবস উদযাপিতমুন্সিগঞ্জ, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯: তথ্য অধিকার আইন ২০০৯ এর প্রচার ও প্রসারের লক্ষ্যে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণের আহবান জানালেন মুন্সিগঞ্জ এর জেলা প্রশাসক মো: মনিরুজ্জামান তালুকদার।

তথ্য জানার অধিকার সম্পর্কে জনসচেতনতা সৃষ্টির পাশাপাশি তথ্য অধিকার আইন ২০০৯ বিষয়ে জনগণকে অবহিত করার লক্ষ্যে অদ্য সকালে তথ্য কমিশন, মুন্সিগঞ্জ জেলা প্রশাসন এবং সনাক-টিআইবি’র যৌথ উদ্যোগে ‘‘তথ্যের অধিকার,সুশাসনের হাতিয়ার; তথ্যই শক্তি, দুর্নীতি থেকে মুক্তি’’ শীর্ষক শ্লোগানে নানা কর্মসুচির মধ্য দিয়ে আন্তর্জাতিক তথ্য অধিকার দিবস’১৯ পালিত হয়েছে। কর্মসুচির মধ্যে ছিল র‌্যালি, আলোচনা সভা ।

সকাল ৯:৩০ টায় শহরের জেলা শিল্পকলা একাডেমী প্রাঙ্গণে হতে বর্ণাঢ্য র‌্যালিটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে এসে শেষ হয়। র‌্যালিতে মুন্সিগঞ্জ এর সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) খান মো: নাজমুস শোয়েব, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ নাজমুর রায়হান, সনাক সভাপতি মুহাম্মদ তানভীর হাসান, সারকারি বেসরকারি বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্রতিনিধি, স্থানীয় গণমাধ্যম কর্মী বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থী সহ প্রায় তিন শতাধিক নারী-পুরুষ অংশগ্রহণ করেন।

র‌্যালি শেষে জেলা প্রশাসক মো: মনিরুজ্জামান এর সভাপতিতে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভার সভাপতি মুন্সিগঞ্জ এর জেলা প্রশাসক তার বক্তব্যে উল্লেখ করেন যে, তথ্য অধিকার আইন ২০০৯ সালে পাশ হলেও আইনটি তেমন প্রচার ও প্রসার পায়নি।

এ আইনের প্রচার ও প্রসারে জন্য তৃণমূল পর্যায়ে অনেক কাজ করতে হবে। তিনি বলেন, তথ্য অধিকার আইনটি হলো জনগণের আইন। এই আইনের মাধ্যমে জনগণের সরকারি, বেসরকারি ও বিদেশী সাহায্যপুষ্ট এনজিও এর তথ্য জানার অধিকার রয়েছে। তবে সুনির্দিষ্ট পদ্ধতিতে তথ্য প্রাপ্তির জন্য আবেদন করতে হবে। তথ্য চওয়ার সময় আমাদের লক্ষ্য রাখতে হবে যে তথ্য জন্য আবেদন করছি তা কতটা যুক্তিযুক্ত।

গণতান্ত্রিক অধিকার ও সুশাসন প্রতিষ্ঠা এবং দুর্নীতি প্রতিরোধের জন্য তথ্য অধিকার আইনের যথাযথ বাস্তবায়ন অতীব জরুরী বলেও তিনি মন্তব্য করেন। তিনি তথ্য অধিকার আইনের যথাযথ বাস্তবায়ন এবং এর সুফল জনগণের দাড় গোড়ায় পৌছে দেওয়ার লক্ষ্যে সরকারি-বেসরকারি পর্যায়ে যৌথ উদ্যোগে কাজ করার উপর গুরুত্ব আরোপ করেন এবং মানুষের মাঝে এব্যাপারে আরো সচেতনতা বৃদ্ধির সুপারিশ করেন। তিনি তথ্য অধিকার আইনের যথাযথ বাস্তবায়নে সনাক এবং টিআইবির মতো প্রতিষ্ঠানগুলো সরকারের সহযোগি হয়ে স্থানীয় ও জাতীয় পর্যায়ে কাজ করছে বলে তাদের প্রতি ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন মুন্সিগঞ্জ এর সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) খান মো: নাজমুস শোয়েব, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ নাজমুর রায়হান, জেলা তথ্য অফিসার মোহাম্মদ মনির হোসেন, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার তাপস কুমার অধিকারী, সনাক সভাপতি মুহাম্মদ তানভীর হাসান, সনাক সহ-সভাপতি আবু সাত্তার মুন্সী, বীর মুক্তিযোদ্ধা এম.এ কাদের মোল্লা,

সভায় বক্তাগণ উল্লেখ করেন যে, জনগণের মাঝেও তথ্য জানার আগ্রহের ঘাটতি রয়েছে। সরকার ২০০৯ সালে তথ্য অধিকার আইন পাশ করলেও সরকারি-বেসরকারি দপ্তরসমূহে এ আইনের আলোকে তথ্য চেয়ে আবেদন করার মাত্রা খুবই নগণ্য বলে তারা মতামত ব্যক্ত করেন।

তারা তথ্য অধিকার আইন সম্পর্কে জনগণের মাঝে প্রচারের পাশাপাশি সরকারি-বেসরকারি দপ্তরে প্রাপ্ত সেবা সম্পর্কেও জনগণের মাঝে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে আরো প্রচারণা বৃদ্ধির সুপারিশ করেন। সকলের সম্মিলিত প্রয়াসে এবং তথ্য অধিকার আইনের যথাযথ বাস্তবায়নের মাধ্যমে জনগণ তাদের তথ্য জানার অধিকার নিশ্চিত করতে পারবে বলে সভায় বক্তাগণ আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here