সংবাদপত্র ও সাংবাদিকতা: প্রেক্ষাপট মুন্সিগঞ্জ- বিক্রমপুর

১লা অক্টোম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার, মুন্সিগঞ্জ নিউজ ডটকম:

গোলাম আশরাফ খান উজ্জ্বল :

মুন্সিগঞ্জ বিক্রমপুরে প্রাচীন কালে কোন সংবাদপত্র প্রকাশিত হতো না। ইংরেজ শাসনামলের মাঝামাঝি সময়ে বিক্রমপুর হতে সংবাদপত্র প্রকাশের প্রমাণ দেখা যায়।

১৮৪৫ সালে মুন্সিগঞ্জ মহকুমায় উত্তীর্ণ হলে তার দু’বছর পর “সংশোধনী” নামে একটি পত্রিকার অস্তিত্ব লক্ষ করা যায়। সংশোধনী ১৮৪৭-১৮৬০ সালে মাসিক হিসাবে প্রকাশিত হতো।

শ্রীনগরের কুকুটিয়া গ্রাম হতে প্রতিমাসে সংশোধনী প্রকাশ করতো জ্ঞানমিহির বিকাশিনী সভা। তবে মাসিক সংশোধনীর সম্পাদকের নাম এখনো সম্ভব হয়নি। এছাড়া সিরাজদিখানের জৈনসার এলাকায় প্রকাশিত হতো “পল্লী বিজ্ঞান” নামের একটি পত্রিকা। রাজমোহন চট্টোপাধ্যায় ছিলেন “পল্লী বিজ্ঞানের” সম্পাদক।

“নবজীবন” নামে বৃটিশ শাসনামলে মুন্সিগঞ্জের মুসলমানদের দ্বারা একটি পত্রিকা প্রকাশের তথ্য পাওয়া যায়। “নবজীবন” পত্রিকার প্রকাশক ছিলেন আব্দুল আজিজ ভূইয়া। এছাড়া পাকিস্তান শাসনামলে “গ্রামের কথা” নামে একটি সাপ্তাহিক পত্রিকা মুন্সিগঞ্জ শহর থেকে প্রকাশিত হতো।

“গ্রামের কথা” সাপ্তাহিকের সম্পাদক ছিলেন বিখ্যাত পার্লাম্যান্টরিয়ান আব্দুল হাকিম বিক্রমপুরী। ১৯৬২ সালে “গ্রামের কথা” প্রকাশিত হতো। বিক্রমপুরের সন্তান শীতলাকান্ত। শ্রী শীতলাকান্ত ১৮৮০ সালে “পাঞ্চাব ট্রিবিউন” পত্রিকার প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক ছিলেন। ১৮৯৮ সালের ১৩ জানুয়ারি শীতলাকান্ত মারা যান। শীতল কান্ত বাংলা ১২৬৩ সনে বিক্রমপুরের পশ্চিমপাড়া গ্রামে জন্ম গ্রহণ করেছিলেন। আমাদের হাতে থাকা তথ্য অনুসারে আধুনিক মুন্সিগঞ্জের মাসিক পত্রিকা হলো “মাসিক বিক্রমপুর”।

দীর্ঘদিন যাবৎ পত্রিকাটি মুন্সিগঞ্জ জেলার বিভিন্ন তথ্য ও সংবাদ পরিবেশন করে আসছে। খুব সম্ভবত ১৯৮১ সাল হতে “মাসিক বিক্রমপুর” সিরাজদিখান থেকে প্রাকাশিত হয়ে আসছে। মাসিক বিক্রমপুর পত্রিকার প্রকাশক এমদাদুল হক পলাশ। “সাপ্তাহিক মুন্সিগঞ্জ” জেলা শহর থেকে প্রকাশিত অন্যতম সাপ্তাহিক।

সাপ্তাহিক মুন্সিগঞ্জের সম্পাদক ও প্রকাশক বিচারপতি এ.এফ. রহমান। “মুন্সিগঞ্জ সংবাদ” জেলার একটি সাপ্তাহিক। সম্পাদক শহীদ ই হাসান তুহিন। “খোলা কাগজ” সাপ্তাহিক হিসাবে প্রকাশিত হচ্ছে। মোহাম্মদ সেলিম সম্পাদক হিসাবে রয়েছেন “বিক্রমপুর সংবাদ”।

জেলার একমাত্র দৈনিক পত্রিকার নাম “দৈনিক মুন্সীগঞ্জের কাগজ”। এর সম্পাদক মোহাম্মদ আরফিন মোল্লা। কাগজের খবরের সম্পাদক- জাকির হোসেন সুমন, ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক কাজী দীপু, খবরের খেয়ায়- শেখ আলী আকবর সম্পাদক, হাজী মোঃ সেলিম “দৈনিক টারমিগান” এর সম্পাদক। মুন্সিগঞ্জ জেলার বেশ কয়েকজন সন্তান ঢাকা থেকে প্রকাশিত জাতীয় দৈনিকের সম্পাদক ও সহকারী সম্পাদক হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন।

সম্পাদক হিসাবে রয়েছেন দৈনিক জনকন্ঠের আতিকউল্লাহ খান মাসুদ,The Independent: এর সম্পাদক প্রয়াত মাহবুব আলম, ইমদাদুল হক মিলন “দৈনিক কালের কন্ঠ” এর সম্পাদক। আবুল কালাম আজাদ “বাসস” এর প্রধান সম্পাদক। “দৈনিক সংবাদ”এর বার্তা সম্পাদক ছিলেন প্রয়াত মোজাম্মেল হোসেন মন্টু। দৈনিক রূপবানীর ফারুক আহ্মেদ, প্রশান্ত ঘোষাল ইত্তেফাকের সাবেক শিপ্ট ইন চার্জ, প্রয়াতশেখ নূরুল ইসলাম দীর্ঘদিন দৈনিক দিনকাল সহকারী সম্পাদক ছিলেন। ফাহিম ফিরোজ “দৈনিক ইনকিলাব”এর সহকারী সম্পাদক। জাকির হোসেন সিকদার,

“বাংলাদেশ সময়” এর বার্তা সম্পাদক। মুন্নী সাহা, এটিএন নিউজ এর হেড অব নিউজ, প্রণব সাহা অপু- পল্লানিং এডিটর, এটিএন নিউজ, সাহাদাৎ রানা, এটিএন নিউজ এর নিউজ রুম এডিটর। মীর নাসির উদ্দিন উজ্জল দৈনিক জনকন্ঠ, মোজাম্মেল হোসেন সজল, মানব জমিন ও আরিফ-উল ইসলাম যুগান্তরে স্টাফ রিপোর্টার হিসেবে কাজ করছেন। রাসেল মাহমুদ, একে আজাদ মুন্না, মাইনদ্দিন সুমন, শেখ মোঃ রতন, সাইদুর রহমান টুটুল, সেতু ইসলাম,

সোনিয়া হাবীব লাবনী, ফারহানা মির্জা বর্না, নূপুর চৌধুরী ইলেক্ট্রনিক্স মিডিয়ায় কাজ করছেন। সুনির্মল চক্রবর্তী, মঞ্জুর মোর্শেদ, মোহাম্মদ সেলিম, মাহবুবু আলম লিটন, রশিদ আহ্মেদ মামুন, মোঃ মাসুদ খান, মামুনুর রশীদ খোকা, আবু সাঈদ সোহান, শহীদ ই হাসান তুহিন, তানভীর হাসান, বাছির উদ্দিন জুয়েল,

লাবলু মোল্লা, সুমন ইসলাম, মাহবুব আলম বাবু, জসিম উদ্দিন দেওয়ান, এমদাদুল হক পলাশ, শামসুজ্জামান পনির, ব.ম শামীম, আওলাদ হোসেন, সুব্রত, মোঃ জসিম, মাসুদ রানা, মহিউদ্দিন, মাহবুব আলম জয় জেলায় সাংবাদিকতা করছেন। লেখক- সাংবাদিক, প্রাবন্ধিক।
পূর্ব প্রকাশিত

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here