প্ল্যাটফর্মে ফেইসবুক নন-মেডিক্যাল মাস্কের অনুমোদন দিচ্ছে

04-ফেইসবুক এবং ইনস্টাগ্রাম প্ল্যাটফর্মে ‘নন-মেডিক্যাল’ মাস্কের প্রচারণা এবং বাণিজ্যের জন্য গ্রাহককে অনুমোদন দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে সামাজিক মাধ্যম জায়ান্ট প্রতিষ্ঠানটি। অর্গানিক পোস্ট, বিজ্ঞাপন এবং বাণিজ্যিক পণ্যের তালিকায় এই মাস্কগুলো দেখাতে পারবেন গ্রাহক।

নন-মেডিক্যাল এই মাস্কগুলোর মধ্যে বাড়িতে বানানো বা হাতে বানানো মাস্কও থাকছে — খবর আইএএনএস-এর। আর্থিকভাবে লাভবান হতে গ্রাহক যাতে মহামারী পরিস্থিতির সুযোগ নিতে না পারেন, সেজন্য সার্জিকাল বা এন৯৫ মাস্কের মতো মেডিক্যাল মাস্ক বিক্রির ওপর সাময়িক নিষেধাজ্ঞা চালিয়ে যাবে ফেইসবুক। জালিয়াতি, চিকিৎসা বিষয়ে বিভ্রান্তিকর দাবি, চিকিৎসা সরঞ্জামের সঙ্কট, পণ্যের বাড়তি মূল্য এবং গোপনে পণ্য মজুদের মতো কার্যক্রম থামানোর লক্ষ্যে মার্চ মাসে নিজস্ব সেবাগুলোতে মাস্কের বিক্রি সাময়িক নিষিদ্ধ করে ফেইসবুক।

বুধবার এক বিবৃতিতে ফেইসবুকের পণ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের পরিচালক রব লেদার্ন বলেন, “তখন থেকেই আমরা কোভিড-১৯ সম্পর্কিত বিভিন্ন প্রথা এবং কার্যক্রমগুলো পর্যবেক্ষণ করছি, যাতে আমরা আরও ভালোভাবে বুঝতে পারি মহামারী পরিস্থিতিতে গ্রাহক আমাদের প্ল্যাটফর্ম এবং বিজ্ঞাপনী টুলগুলো কীভাবে ব্যবহার করছেন।” এখন নন-মেডিক্যাল মাস্ক পরার পরামর্শ দিচ্ছে অনেক সাস্থ্য সংস্থা।

ফেইসবুকের এই পদক্ষেপের মাধ্যমে নন-মেডিক্যাল গ্রেডের মাস্কগুলোর প্রচারণা চালাতে পারবেন গ্রাহক। চিকিৎসা বা স্বাস্থ্য সুরক্ষার দাবি না জানিয়ে যে মাস্কগুলোর প্রচারণা করা হয়, সেগুলোকেই নন-মেডিক্যাল মাস্ক হিসেবে বিবেচনা করা হয়। নন-মেডিক্যাল মাস্কের সাধারণ উদাহরণ হতে পারে হাতে বানানো মাস্ক, পুনব্যবহারযোগ্য মাস্ক বা বাড়িতে ব্যবহার্য কাপড়ের তৈরি মাস্ক।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here