মিরকাদিমে সালামের মনোনয়নে মিষ্টি বিতরণ

IMG_0677মোহাম্মদ সেলিম:

অবশেষে সকল জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে মিরকাদিম পৌরসভার নৌকার মাঝি হয়েছেন হাজি আবদুস সালাম। এখানে একাধিক ব্যক্তি হেভিওয়েট প্রার্থী মেয়র পদে দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশি ছিলেন। তাদের সবাইকে টপকিয়ে এই জয়ের মালা পেয়েছেন হাজি আব্দুস সালাম।

আব্দুস সালাম মিরকাদিম পৌরসভা আ’লীগের কার্য নির্বাহী পরিষদের সদস্য। তার দলীয় পরিচয় শুধু মাত্র এইটুকুই। আর তাতেই তিনি এ জয় পেয়েছেন। মুন্সীগঞ্জ জেলা আ’লীগের কমিটি থেকে মিরকাদিম পৌরসভার বর্তমান মেয়র মো: শহিদুল ইসলাম শাহিনের নাম প্রস্তাব হিসেবে এককভাবে কেন্দ্রিয় আ’লীগের অফিসে পাঠানো।

তবে শাহিন আ’লীগের কোন পদ পদবীতে ছিলেন। তিনি ছিলেন আ’লীগে অনু প্রবেশকারী। তাই তিনি এবার দলীয় মনোনয়ন পাননি বলে বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে।

এদিকে আর এর পরপরই মিরকাদিম পৌরসভার সভাপতি ওয়াহিদুজ্জামান বাসু তিনজনের নামের নতুন তালিকাসহ আরো একটি প্রস্তাব পাঠান। সেখানে ছিলো মুন্সীগঞ্জ জেলা আ’লীগের শিক্ষা ও মানব সম্পদ বিষয়ক সম্পাদক মনসুর আহমেদ কালাম। মিরকাদিম পৌর আ’লীগের কমিটির কার্য নির্বাহী সদস্য হাজি আব্দুস সালাম। মিরকাদিম পৌর আ’লীগের কমিটির উপদেষ্ঠা মনিরুজ্জামান শরীফ।

মুন্সীগঞ্জ জেলা আ’লীগের শিক্ষা ও মানব সম্পদ বিষয়ক সম্পাদক মনসুর আহমেদ কালাম মিরকাদিমে গত পৌর নির্বাচনে নৌকার বিপক্ষে বিদ্রোহী প্রার্থী থাকায় এবার আর তিনি মনোনয়ন পেলেন না একাধিক সূত্রে নিশ্চিত হওয়া গেছে। এ কারণে দ্বিতীয় হিসেবে হাজি আব্দুস সালামের নাম থাকায় তিনিই এ মনোনয়ন পেয়েছেন। এছাড়া এর আগের নির্বাচনে হাজি আব্দুস সালাম আ’লীগের দলীয় প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করে ছিলেন।

যা এবারের মনোনয়নে তা সহায়ক ভূমিকা হিসেবে কাজ করেছে বলে জানা গেছে। শাহিনের বিপক্ষে সালাম আ’লীগের মনোনয়ন পাওয়ায় সকল মহলে উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে। অনেক স্থানে মিষ্টি বিতরণ করতে দেখা যাচ্ছে। ১৩ জানুয়ারি বুধবার বিকাল ৪টায় গণভবনে অনুষ্ঠতি আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের সভায় বিষয়টি চুড়ান্ত করা হয়।

আওয়ামী লীগ সভানত্রেী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে স্বাস্থ্যবিধি মেনে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। উল্লেখ্য আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারী ইভিএম পদ্ধতিতে মিরকাদিম পৌরসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here