করোনা উপেক্ষায় প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা-শিক্ষকরা আনন্দে মাতোয়ারা

162299498_972640883476268_6364906899268022335_oমোহাম্মদ সেলিম:

করোনা কালীন সময়ের মধ্যে গতকাল শনিবার মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা পরিবারের ব্যানারে প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তাসহ শিক্ষকরা আনন্দ ভ্রমণে মুন্সীগঞ্জ থেকে নরসিংদি গেছেন বলে জানা গেছে।
এ ভ্রমণে প্রায় আড়াইশত শিক্ষক অংশ গ্রহণ করে বলে জানা গেছে।

সকালে মুন্সীগঞ্জের কৃষি ব্যাংকের কাছ থেকে নারায়ণগঞ্জের একাধিক উৎসব বাসে করে এখানকার শিক্ষা কর্মকর্তা ও শিক্ষকরা নরসিংদিতে যায় বলে জানা গেছে। রাত নয়টার দিকে একাধিক শিক্ষকদের সাথে যোগাযোগ করলে তারা জানান,

এখন তাদের বাস নারায়ণগঞ্জের কাছাকাছি রয়েছে। এ আনন্দ ভ্রমণে জনপ্রতি দেড় হাজার টাকা করে চাঁদা তোলা হয় বলে শোনা যাচ্ছে। অনেক শিক্ষককে জোর করে এ আনন্দ ভ্রমণে নেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

এক শ্রেণির শিক্ষক নেতাদের তোপের মুখে এ আনন্দ ভ্রমণ আয়োজন হয়েছে বলে জোর অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে। এ আনন্দ ভ্রমণে মুন্সীগঞ্জ উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের শিক্ষা কর্মকর্তরাও অংশ নেন বলে শোনা যাচ্ছে।

সাধারণত এ ধরণের কর্মসূচিতে করোনার কারণে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের ছাড়পত্রের প্রয়োজন হয় বলে শোনা যাচ্ছে। কিন্তু এ আনন্দ ভ্রমণে সেই ধরণের কোন ছাড়পত্র নেই বলে শোনা যাচ্ছে। করোনার কারণে প্রাথমিক বিভাগে সরকার সকল ধরণের শিক্ষার্থীদের ক্লাস বন্ধ রেখেছেন।

সেখানে মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলার শিক্ষা কর্মকর্তাসহ শিক্ষকরা আনন্দ ভ্রমণে মেতে উঠেছেন। এ বিষয়টি সকল মহলে আলোচনার ঢেউ উঠেছে।

মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা নাসিমা খানম বলেন, চলতি মাসের ৩০ তারিখে প্রাথমিকের স্কুল খুলে ফেলার পরিপত্র অধিদপ্তর থেকে আমাদের কাছে এসে পৌঁছে। শিক্ষকদের অনুরোধ হচ্ছে স্কুল খুলে ফেলার আগেভাগে একটু ঘুরে আসার লক্ষ্যে এ আয়োজন ছিল।

মুন্সীগঞ্জ জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো: মাসুদ ভুইয়া জানান, তারা গতকাল শনিবার ভ্রমণে গেছেন সেই বিষয়টি তিনি জানেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here