মুন্সীগঞ্জের মেয়ে রুমাকে শশুরবাড়ি নারায়ণগঞ্জে হত্যার অভিযোগ

162728987_702245757110057_6808835429001567424_nনিজস্ব প্রতিবেদক: মুন্সীগঞ্জ সদরের চরকেওয়ার ইউনিয়নের বর্ষারচর গ্রামের মৃত- রাজ্জাক বেপারীর ৪র্থ মেয়ে রুমা বেগম (২৯) কে নারায়ণগঞ্জ জেলার সিদ্ধিরগঞ্জ থানার স্বামীর ভাড়াটিয়া বাড়িতে গলায় ফাঁস দিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে।
গত ১৯ মার্চ শুক্রবার রাত আনুমানিক ৯ টার দিকে নারায়নগঞ্জ সিদ্ধিরগঞ্জের স্বামী খোকন খানের ভাড়া বাড়িতে ওড়না পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে হত্যার অভিযোগ করে রুমার পরিবার ও স্বজনরা। সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশ খবর পেয়ে এলাকার মুজিববাগ জাকির মিয়ার ভাড়াটিয়া খোকন খানের ঘর থেকে ওড়না পেচানো,
ফাঁস দেওয়া অবস্থায় রুমার মৃত দেহ উদ্ধার করে। এরপর ময়নাতদন্তের জন্য মৃত রুমার লাশ নারায়ণগঞ্জের ভিক্টোরিয়া হাসপাতালে মর্গে পাঠায়। এদিকে রুমার পরিবার এ হত্যাকান্ডকে পরিকল্পিত হত্যাকান্ড দাবি করে স্বামী খোকন খানের দিকে হত্যাকান্ডের অভিযোগ তোলেন।
163318396_201296284661851_3850439361483573486_nরুমার ছোট বোন শিউলী আক্তার জানান, গত শুক্রবার রাত পোনে ৯ টার সময় বোন রুমা ফোন দিয়ে বলে। মাকে নিয়ে আসবি আমার বাসায়। আমি আমার বিয়ের কাবিন নামা তোলতে যাবো। আরও বলেন, আমারা পাচটি বোন আমাদের কোন ভাই নেই। আমার জন্মের পরে বাবা মারা গেছের।
বোন ঐ এলাকার পোশাক তৈরি কারখানায় কাজ করতেন। রুমার ২০১৯ সালের ২৩ ডিসেম্বর খোকন খানের সাথে বিয়ে হয়। তার ঘরে ৫ মাসের ওসমান গনি (রুমান) নামে ছেলে সন্তান রয়েছে। আমার বোন গলায় ফাঁস দিয়ে মরতে পারেনা। এটা পরিকল্পিত হত্যা! আমার বোন মারা গেছে এটা আমাদের জানানো হয় নাই।
163383449_188718166126580_3234494738053506871_nখোকন গত ২০ মার্চ শনিবার সকাল আনুমানিক ৮ টায় ফোন করে বললো মাকে নিয়ে যেতে তখনো বলে নাই আমার বোন মারা গেছে। আমরা দুপুর ১২ টার দিকে রওনা দিয়ে বিকেল ৩ টায় দিকে ঐখানে পৌঁছানোর পর জানতে পারি আমার বোন মারা গেছে। পরে রাত ১০ টার দিকে লাশ এনে আমরা মাটি দেই।
এদিকে মা মাজেদা বেগম (৫৯) বলেন, ২৪ বছর আগে স্বামী মারা গেলে, আমি মানুষের কাছে চেয়ে মেয়েদের খাওয়াইয়েছি। রাস্তার পারে ঘর করে থাকি। আমার কোন জমি নেই। আমার মাইয়ারে মাইরা ফালাইছে। আমি বিচার চাই। এখন ছোট শিশুকে নিয়ে কি করবো। প্রধানমন্ত্রীর কাছে এর বিচার চাই।
গ্রামের হাসিনা বেগম বলেন, পাঁচ ছয় মাস বাচ্চা হলে চিকিৎসার জন্য গ্রাম থেকে টাকা তোলে দেয়া হয়। আমরা এ হত্যা কান্ডের বিচার চাই। এ বিষয়ে সুরতহাল প্রতিবেদন কর্মকর্তা সিদ্ধিরগঞ্জ থানার এসআই মো. নুর আলম মিয়া বলেন, আমরা লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠাই।
এরপর পরিবারের অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে বলেন, আমরা ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পেলে ব্যবস্তা গ্রহন করতে পারবো।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here