বজ্রযোগিনীর শিবমন্দির না লেখা ইতিহাস

৮৭৮গোলাম আশরাফ খান উজ্জ্বল

মুন্সীগঞ্জ সদরের বজ্রযোগিনী ইউনিয়নের হারিয়ে যাওয়া ইতিহাস হলো বজ্রযোগিনীর শিবমন্দির। শ্রীজ্ঞান আতীশ দীপঙ্করের বাড়ির সামান্য পশ্চিম দিকে শেখ বাড়িতে রয়েছে একটি প্রাচীন শিবমন্দির। নির্মাণ শৈলী দেখে মনেহলো, এই মন্দিরটি ১৬৮০-১৭০০ খ্রিষ্টাব্দের মধ্যে নির্মিত। মন্দিরের গায়ে কোন নামফলক না থাকায় নির্মাণ সাল সঠিক ভাবে জানা যায় না।

বজ্রযোগিনী ইউনিয়নের সোম পাড় া গ্রামে শেখবাড়িকে স্থানীয়র া মঠেরবাড়ি বলে। আসলে এটি মঠ নয়। এটি একটি শিব মন্দির। এই মন্দিরটি ১৫ ফুট দ্ধ ১৫ ফুট আয়তন বিশিষ্ট। উচ্চতা ৩০ ফুট। এটি একটি পঞ্চশেখর শিব মন্দির। মন্দিরটি ভগ্ন অবস্থায় রয়েছে।

১৯ মার্চ ২০২১ শুক্রবার বিকেল ৪টায় শিব মন্দিরটি জীর্ণশির্ণ অবস্থায় দেখলাম। চারদিকে চারটি দরজা দেখা গেল। দক্ষিণ দিকের দরজাটি আয়তনে বড়। প্রতিটি দেয়াল ৩ ফুট চওড়া। এখানে শিবলিঙ্গ দেখা গেল না। গঠনানুসারে এটি একটি পঞ্চ শেখর শিব মন্দির।

মন্দিরের ইট গুলে া ৮” দ্ধ৬” দ্ধ ১” মাপের। ইট, সুরকী চুন দিয়ে নির্মাণ করা হয়েছিল শিব মন্দিরটি। মুসলমানদের বাড়ির উপরে হলেও তারা মন্দিরটি ভাঙ্গেনি বা ধ্বংস করেনি। মন্দিরটি বটগাছে ঢেকে গেছে।
লেখক: ইতিহাস ও প্রত্নগবেষক গোলাম আশরাফ খান উজ্জ¦ল

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here