সিরাজদিখানে গরু চোর সন্দেহে গণপিটুনি

mnews-groupতুষার আহাম্মেদ ও সাগর মাহমুদ:

সিরাজদিখান উপজেলায় গরু চোর সন্দেহে গ্রামবাসী গণপিটুনি দিয়েছে চোরকে। এ গণপিটুনির শিকার হয়েছেন ৩ নারীসহ ৬ জন চোর। তারমধ্যে দুইজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে খবর পাওয়া গেছে। তারা হচ্ছেন এদের মধ্যে জনি ও নার্গিসের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

তাদেরকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে আর বাকী ৪ জন উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে ।এ ঘটনাটি ঘটে বৃহস্পতিবার দুপুরে সিরাজদিখান উপজেলার বাসাইল ইউনিয়নের সিংগারডাক গ্রামে।

গণপিটুনিতে শিকার চোরেরা হচ্ছে, শরিয়তপুর জেলার নড়িয়া থানার ডৈরশ্বর গ্রামের আলী মোহাম্মদ মিয়ার পুত্র ইমন মিয়া (১৮), ময়মনসিংহ জেলার রাগাই ছোটি গ্রামের রফিক মিয়ার পুত্র নয়ন মিয়া (১৮), একই এলাকার রফিক মিয়ার স্ত্রী নারগিস (৩০),

বরিশাল জেলার বাকেরগঞ্জ থানার আবুল কালামের স্ত্রী জেসমিন (৪৫), ঢাকার যাত্রাবাড়ী এলাকার লোকমান মিয়ার পুত্র জনি (৩৪), কুমিল্লা জেলার দাউদকান্দি থানার মমিন মিয়ার স্ত্রী বেবি (৪৫)।

সিরাজদিখান উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা.আঞ্জুমান আরা জানান, আমার এখানে ৬ জন আসে ছিলো। এখন ৪ জন ভর্তি আছে। আর দু’জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ার কারণে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে ।

সিরাজদিখান থানার ওসি বোরহান উদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, খবর পেয়ে পুলিশ আহতদের উদ্ধার করে এবং মুমুর্ষ অবস্থায় ২ জনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপতালে পাঠায়।

বাকি আহত ৪ জনকে সিরাজদিখান উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। তারা সুস্থ্য হলে জানা যাবে তারা গরু চোর কিনা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here