মুন্সীগঞ্জে উত্তপ্ত চরকেওয়ারে সিএনজি চালক বাবুল আহত

IMG-20210519-WA0024নিজস্ব প্রতিবেদক: মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলার চরকেওয়ার ইউনিয়নে আবারো বাবুল মোল্লা (৩৫) নামের এক সিএনজি চালককে কুপিয়ে জখম করার অভিযোগ উঠেছে। এবার অভিযোগের তীঁর নারী হামলাকারী খাসকান্দি গ্রামের সাহিদা বেগমের বিরুদ্ধে।

বুধবার দুপুরে ইউনিয়নের খাসকান্দি গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। হামলার পর আহত বাবুল মোল্লাকে ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। এ বিষয়ে আহত বাবুল মোল্লার স্ত্রী রোজিনা বেগম জানান,

দুপুরে আমার দেবর জসিম মোল্লা জমিতে কাজ করতে গেলে তাকে ১০/১২ জনের একটি সন্ত্রাসী দল অস্ত্রের মুখে বাঘাইকান্দিতে তুলে নিয়ে যায়। পরে তাকে মারধর করে বেঁধে রেখে। এরপর তাকে মুন্সীগঞ্জ সদর থানার সাব-ইন্সপেক্টর ফরিদউজ্জামান ফরিদের হাতে সোর্পদ করে।

আমার স্বামী বাবুল মোল্লা সিএনজি চালিয়ে বাসায় ফিরছিলো। এ সময় পূর্ব থেকে উৎপেতে থাকা একই এলাকার সাহিদা বেগম বটি দিয়ে বাবুলের মাথায় আঘাত করে।

এ বিষয়ে সদর থানার সাব-ইন্সপেক্টর সুকান্ত বাউল জানান, মুন্সীগঞ্জ সদর থানার মামলা নং-৭৫/৩০-০৪-২০২১ এর এজাহার নামীয় আসামী জসিম মোল্লাকে এলাকার কিছু লোক আটক করে সোপর্দ করে সাব-ইন্সপেক্টর ফরিদউজ্জামান কাছে। গ্রেফতারের পর এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। পরে আমাদের কাছে খবর আসে সাহিদা বেগম জসিম মোল্লার ভাই বাবুল মোল্লাকে বটি দিয়ে মাথায় কুপ দিয়ে জখম করেছে।

আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে অভিযুক্ত সাহিদা বেগমকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে আসি। যদি বাবুল মোল্লাকে হত্যার উদ্দেশ্যে কুপ দিয়ে থাকে, তবে তদন্ত সাপেক্ষে তার বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা রুজু করা হবে। সাহিদা বেগম খাসকান্দি গ্রামের সুরুজ সরদারের মেয়ে।

এ বিষয়ে মুন্সীগঞ্জ সদর থানার ওসি মো. আবু বকর সিদ্দিক জানান, আমরা খবর পেয়ে সঙ্গে সঙ্গে পুলিশ পাঠিয়েছি। পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। ঘটনায় একজন মহিলা আটক রয়েছে। ঘটনার সাথে জড়িত থাকলে নিয়মিত মামলা রুজু করা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here