মুন্সীগঞ্জে কাজি কসবায় আধিপত্য বিস্তারে নয়নকে হত্যা

নিহত মো নয়ন মিজিসাগর মাহমুদ ও সালমান হাসান:

মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলার রামপাল ইউনিয়নের কাজি কসবা গ্রামে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায় এক ব্যক্তির মৃত্যু ঘটেছে। মৃত ব্যক্তিটি হচ্ছে নয়ন। নয়ন দুই কন্যা সন্তানের জনক।

পূর্বের ঘটনার জের হিসেবে গতকাল বুধবার বিকেলে পৌনে ৫টার দিকে এলাকার একটি পেপার মিলের কাছে নয়নের মোটর সাইকেলের গতিরোধ করে প্রান্ত শেখের দলবল। সেখানে নয়নকে বেদম প্রহার করে তারা। পরে আহত অবস্থায় নয়নকে মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে আনলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য পরে ঢাকা নিয়ে যাওয়া হয়।

সকালের দিকে ঢাকায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় নয়নের মৃত্যু ঘটে। নয়নের মৃত্যুর খবর গ্রামের বাড়িতে পৌছলে সেখানে সকলে কান্নায় ভেঙ্গে পরে। এখানে এখন শোকের মাতম চলছে। মৃত্যুর খবর পেয়ে অনেকেই এ বাড়িতে এখন ছুটে আসছে।

মৃত্যুর খবরে এখানকার যুব সমাজ বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠে। তারা গ্রামে হত্যার বিচারের দাবিতে দফায় দফায় মিছিল বের করে। মিছিলের সময় তারা গ্রামের ভেতরে একটি দোকানঘর ভাঙ্গচুর করে।

রোজার শেষ দিকে নয়নের এ কবুতর খামারে প্রান্ত শেখ এর দলবল কবুতর নিয়ে যাওয়ার সময় নয়ন বাঁধা দেয়। এ নিয়ে নয়নের সাথে তাদের মারামারি হয়। এরপর থেকে নয়ন কবুতর খামার তার নিজ বাড়িতে নিয়ে আসে। এ ঘটনায় প্রান্ত শেখসহ একাধিক ব্যক্তির বিরুদ্ধে মুন্সীগঞ্জ থানায় মামলা হয়।

প্রান্ত শেখসহ একাধিক ব্যক্তির বিরুদ্ধে মুন্সীগঞ্জ থানায় একাধিক মামলা থাকলেও পুলিশ তাদেরকে গ্রেফতার করেনি বলে অভিযোগ উঠেছে।
সকালের দিকে বিক্ষুব্ধ গ্রামবাসীরা প্রান্ত শেখদের ফাঁসির দাবিতে গ্রাম থেকে মিছিল নিয়ে সিপাহীপাড়ায় রাস্তা অবরোধ করে। পরে পুলিশের হস্তক্ষেপে মিছিলকারীরা রাস্তা অবরোধ থেকে সরে দাঁড়ায়।

দুপুর পৌনে ১টার দিকে নয়নের লাশ ঢাকা থেকে এম্বুলেন্সে সিপাহীপাড়ায় এসে পৌছে। তখন বিক্ষুব্দ গ্রামবাসী দফায় দফায় হত্যাকারীর বিচার দাবি করে। এ সময় এম্বুলেন্স থেকে নয়নের মা রাস্তায় নেমে পরে। তখন এ পরিস্থিতি সামাল দিতে পুলিশকে বেশ বেগ পেতে হয়। পরে নয়নের লাশের ময়না তদন্ত হয় মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here