মুন্সীগঞ্জে নান্দনিক পানাম জোড়ার দেউল জামে মসজিদ

IMG_9455মোহাম্মদ সেলিম:

মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলার রামপাল ইউনিয়নের পানাম গ্রামে রয়েছে শত বর্ষের প্রাচীন মসজিদ। এ মসজিদের নাম হচ্ছে পানাম জোড়ার দেউল জামে মসজিদ। অনেকে আবার এটিকে মোল্লাবাড়ির মসজিদ হিসেবে পরিচিতি দিতে দেখা যায়।

এ মসজিদটি ১৯১৫ খ্রিষ্টাব্দে নির্মিত হয়। ২০০৪ খ্রিষ্টাব্দে এ মসজিদটির পুন:সংস্কার করা হয়। এ মসজিদের পরিচালনা পরিষদের সভাপতি হচ্ছেন রামপাল ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মোশারফ হোসেন মোল্লা। বর্তমানে মসজিদটি তিনতলা ভবনের ওপর দাঁড়িয়ে আছে। এখানে সাত শতাধিক মুসল্লি এক সাথে নামাজ আদায় করতে পারে।

প্রথম দিকে প্রাচীন এ মসজিদটি একচালা ঘরে পানাম গ্রামের মুসল্লিরা নামাজ আদায় করতো। পরে সময়ের সাথে পাল্লা দিয়ে এখানে একতলা ভবনের মসজিদ নির্মাণ হয়। সবশেষে এ তিনতলা ভবনে মসজিদটি নির্মিত হয়।

এ মসজিদটিতে ভিতরে ও বাহিরে নান্দনিক কারুকাজে সুন্দর্য ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। মসজিদের বাহিরের অংশ চমৎকারভাবে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। তাতে মসজিদটি দেখে চোখ জুড়িয়ে যায় এ পথে চলাচলকারীদের।

একাধিক সূত্রে জানা গেছে, এ মসজিদের নির্মাণ শৈলিতে মার্বেল পাথর ব্যবহার করা হয়েছে। শুধুমাত্র মসজিদের নিচের অংশে টাইলস ব্যবহার করা হয়েছে। এ মসজিদের মিনার খুবই উঁচুতে। অনেক দূর থেকে এ মসজিদের মিনারটি দেখা যায়।

IMG_9456পানাম জোড়ার দেউল মসজিদটি ছয় গম্বুজ বিশিষ্ঠ। এরমধ্যে মসজিদের ছাদে পাঁচটি সবুজ মার্বেল পাথরের গম্বুজ রয়েছে। মসজিদের ছাদে মাঝখানে একটি বড় সাইজের গম্বুজ রয়েছে।

আর ছাদের চারদিকের মধ্যে গম্বুজ মাঝখানের চেয়ে একটু ছোট আকারে চারটি গম্বুজ রয়েছে। মসজিদে প্রবেশের মুখের দোতালার ছাদে সাদা মার্বেলর আরো একটি গম্বুজ দেখতে পাওয়া যায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here