পাল্টাপাল্টি অভিযোগ-দফায় দফায় সমঝোতার চেষ্টা! মুন্সিগঞ্জে সাব-রেজিস্টারের বিরুদ্ধে দলিল লেখক সমিতির কর্মবিরতি

pic register (1)

মঙ্গলবার, ১০ এপ্রিল ২০১৮, মুন্সিগঞ্জ নিউজ ডটকম:  মুন্সিগঞ্জ সদর সাব-রেজিস্টারের অপসারণ চেয়ে মুন্সিগঞ্জ জেলা দলিল লেখক সমিতি মঙ্গলবার সারাদিন কলম বিরতি ও অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছে।

অপরদিকে অনৈতিক ও অবৈধ প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় দলিল লেখকের সমিতির একটি সিন্ডিকেট তার বিরুদ্ধে এ অবস্থান নেয় বলে অভিযোগ করেছে সাব-রেজিস্টার।

মঙ্গলবার সকাল ১১ টার দিকে সাব-রেজিস্টার অফিসের সামনে ব্যানার নিয়ে দলিল লেখকরা সাব রেজিস্টারেকে দুর্নীতিবাজ দাবি করে কর্মবিরতি পালন করেন ।

এই বিষয়ে দলিল লেখক সমিতি ও সদর সাব-রেজিস্টার একে অপরের বিরুদ্ধে পাল্টাপাল্টি অভিযোগ অভিযোগ করেছে। এই বিষয়ে -দফায় দফায় সমঝোতার চেষ্টা করা হলেও তা শেষ পর্যন্ত ব্যর্থ হয়েছে বলে শোনা যাচ্ছে।
এদিকে সাব রেজিস্টার মাইকেল মহিউদ্দিন আব্দুল্লাহ সকাল সাড়ে ১১টার দিকে ও পরে পৌনে ৪টার দিকে অফিসের চতুর্থতলা থেকে নিচে নেমে আসেন। সমিতির নেতাদের সাথে তিনি দফায় দফায় বৈঠক করেন। কিন্তু সেই বৈঠক কোনো আলোর মুখ দেখেনি।

সাব-রেজিস্টার অফিস সূত্রে জানা গেছে, প্রায় ২ মাস আগে সদর সাব রেজিস্টার এখানে যোগদান করেন। তার এখানে আসার পর থেকে কতিপয় দলিল লিখকরা সদর সাব রেজিস্টারকে অনৈতিক প্রস্তাব দেন বলে সদর সাব-রেজিস্টার সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করেন।

এতে তিনি রাজি না হয়ে সদর সাব রেজিস্টার দলিল লিখকদের রেজিস্ট্রেশন আইন ও বিধিমালার ২০ ধারার ১৬টি উপধারা অনুসরণ করার পরামর্শ প্রদান করেন। এতে কতিপয় দলিল লিখকরা ক্ষুব্ধ হন। পরে তারা সাব রেজিস্টারের বিরুদ্ধে নানা অপপ্রচার চালাতে শুরু করেন বলে অভিযোগ উঠেছে। pic register (2)

সদরের দলিল লিখক ও ভেন্ডার সমিতির সভাপতি সাইফুল ইসলাম বলেন, সদরের বর্তমান সাব রেজিস্টার দলিল প্রতি বাড়তি টাকা দাবি করেন। এই কারণে এ সাব রেজিস্টারের অপসারন না হওয়া পর্যন্ত এই সমিতির আন্দোলন চলবে বলে তারা ঘোষণা দেন ।

এ বিষয়ে সদর সাব রেজিস্টার মাইকেল মহিউদ্দিন আব্দুল্লাহ বলেন, কতিপয় দলিল লিখক আমাকে রেজিস্ট্রেশন আইন ও বিধিমালা বর্হিভূত কাজ করার প্রস্তাব দেয়। আমি তাদেরকে রেজিস্ট্রেশন আইন ও বিধিমালার অনুসরণ করে দলিল লিখার জন্য বলেছি। কিন্তু তারা বিধি না মেনে আমার বিরুদ্ধে অপ- প্রচার চালাচ্ছে।

আমি ২ মাস হয় এখানে যোগদান করেছি। কাজই তেমন করতে পারলাম না, সেখানে দুর্নীতি করার সময় পেলাম কোথায়?

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here