টঙ্গীবাড়ীতে পাঁচগাও ইউপি নির্বাচনে চলছে আচরণবিধি লংঘনের মহা উৎসব: দলীয় প্রভাব বিস্তারের অভিযোগ উঠেছে

মঙ্গলবার, ৮ মে ২০১৮, মুন্সিগঞ্জ নিউজ ডটকম:

নির্বাচনী সহিংসতার আশংকার মধ্যে দিয়ে টঙ্গীবাড়ী উপজেলার পাঁচগাও ইউপি নির্বাচন চলছে আচরণবিধি লংঘনের মহাউৎসব।
নির্বাচনে দলীয় প্রভাব বিস্তার করে জমে উঠেছে প্রার্থীদের প্রচার প্রচারণা। তবে মানা হচ্ছে না নির্বাচন আচরণ বিধি।
নির্বাচন আচরণ বিধি অনুযায়ী পোস্টার ঝুলানোর কথা থাকলেও তা না মেনে দেয়ালে দেয়ালে সাটানো পোষ্টারে ছেয়ে গেছে পুরো নির্বাচনী এলাকা।

চলছে নির্বাচনী শো-ডাউন ও মিছিল। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে এলাকায় বহিরাগতদের আনা গোনায় বিএনপি প্রার্থী ও স্বতন্ত্র প্রার্থীসহ সাধারণ ভোটাররা চরম আতঙ্কের মধ্যে রয়েছে।
সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, দীর্ঘ ৭ বছর পড়ে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে জেলার টঙ্গীবাড়ী উপজেলার পাঁচগাও ইউনিয়ন পরিষদের সাধারণ নির্বাচন।

চায়ের দোকান থেকে শুরু করে পাড়ার অলি গলির সর্বত্র চলছে নির্বাচনীয় আমেজ । দীর্ঘ সময়ের পর নির্বাচন অনূষ্ঠিত হওয়াতে ভোটরদের মুখে হাঁসি ফুটলেও অজানা আতঙ্কে রয়েছে ভোটারদের মনে। দলীয় প্রতীকে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হলেও নৌকা প্রতীকের আওয়ামীলীগ মনোনিত প্রার্থী মননোয়ন পত্র প্রত্যাহার করায় নির্বাচনে কিছুটা টানটান ভাটা লক্ষ্য করা যাচ্ছে।

অপর দিকে আওয়ামীলীগের দু’জন স্বতন্ত্র প্রার্থী থাকলেও বিএনপির ধানের শীষ প্রতীকে একজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন।
এদিকে নৌকা প্রার্থী না থাকলেও স্বতন্ত্র প্রার্থী মঞ্জুর আলী শেখ আনারস প্রতীক নিয়ে আওয়ামীলীগ দলীয় প্রার্থী মতো প্রচার করে প্রভাব বিস্তার করে অন্যান্য প্রার্থীদের নির্বাচন থেকে সরে যাওয়ার হুমকি দিচ্ছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

এতে সাধারণ ভোটারদের মধ্যে সুষ্ঠ নির্বাচন না হওয়ার আশংকা করছে ভোটাররা। বিএনপি ও চশমা প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে অংশ নেয়া স্বতন্ত্র প্রার্থী শান্তি পূর্ন ভোটাধিকার প্রয়োগের স্বার্থে প্রতিটি কেন্দ্রে বিজিপি মোতায়েনের দাবী জানিয়েছেন।

নির্বাচনে ৬ জন চেয়ারম্যান পদে, সাধারণ সদস্য পদে ২৯জন পুরুষ ও সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে ১৩ জন নারী সদস্য প্রতিদ্বন্ধীতা করছেন ।

আগামী ১৫ মে ১০টি ভোট কেন্দ্রে ৩২ টি ভোট কক্ষে ভোট গ্রহণ করা হবে । ইউনিয়নটিতে মোট ভোটার সংখ্যা ১১,৫৯২ এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ৬০৪৭ জন এবং নারী ভোটার সংখ্যা ৫,৫৪৫ জন । একই দিনে পার্শবর্তী সোনারং টঙ্গিবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের ৪ নং ওয়ার্ডের সদস্য পদে উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে ।

বিএনপির ধানের শীষ প্রতীক প্রার্থী আলী আহম্মেদ শেখ বলেন, ভোট কারচুপি ও কেন্দ্র দখলের আশংকা রয়েছে। উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন থেকে বহিরাগতারা দিনভর মহড়া দিচ্ছে । অবাদ সুষ্ঠ নিরপেক্ষ শান্তিপূর্ন নির্বাচনের দাবী জানান তিনি ।
একাধিক সাধারণ ভোটাররা অভিযোগ করে বলেন, জেলা ও উপজেলা আওয়ামীলীগ,সহ স্থানীয়রা নেতারা ভয়ভীতি দেখিয়ে

নৌকা প্রতীক এর প্রার্থী মিন্টু মুন্সীকে নির্বাচন থেকে সড়ে যেতে বাধ্য করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে।
নেতারা মঞ্জুর আলী শেখকে নৌকা প্রতীক না এনে দিতে না পেরে ভোটারদের ভয়ভীতি দেখাচ্ছে । জেলা ও টঙ্গীবাড়ী উপজেলা আ’লীগের নেতারা প্রকাশ্যে মঞ্জুর আলী শেখের পক্ষে প্রচার প্রচারণা চালাচ্ছে। বিভিন্ন ওয়ার্ডে গিয়ে ভোটারদের হুমকি ধামকি

দিচ্ছে। এতে সাধারণ ভোটারা আতংকিত হয়ে পড়েছে। নিজের ভোট নিজে দিতে পারবে কিনা তা নিয়ে একাধিক ভোটারদের মনে শংশয় দেখা দিয়েছে।

চশমা প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী মিলেনূর রহমান মিলন অভিযোগ করে বলেন, নৌকা প্রতীকের প্রার্থীকে সড়িয়ে দিয়ে উপজেলা আ’লীগের নেতারা স্বতন্ত্রপ্রার্থী আনারস প্রতীকের মঞ্জুর আলী শেখের পক্ষে অবস্থান নিয়েছে। নেতারা প্রকাশ্যে তারপক্ষে প্রচার প্রচারণা চালাচ্ছে। আমার সহর্থকদের প্রতিনিয়ত হুমকি ধামকি দেয়া হচ্ছে।

মঞ্জুর আলী শেখের লোকেরা বলে বেড়াচ্ছে। চশমায় ভোট দিলে খবর আছে । সাধারণ ভোটাররা আতংকে রয়েছে । সুষ্ঠ নির্বাচনের স্বার্থে সেখানে বিজিপি মোতায়েনের দাবি জানাচ্ছে ।

প্রতিদ্বন্ধী প্রার্থীকে হুমকি, কেন্দ্র দখল, সাধারণ ভোটরদের ভয়ভীতির বিষয়টি অস্বীকার করে এবং আওয়ামীলীগ সর্মথীত প্রার্থী দাবী করে স্বতন্ত্র প্রার্থী আনারস প্রতীকের মঞ্জুর আলী শেখ বলেন, জেলা ও উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতারা আমাকে সহমর্থন দিয়েছে।

তারা সকলে আমার জন্য ভোট ও দোয়া চাচ্ছে । নৌকার প্রার্থীর সরে যাওয়ার বিষয়টি আমার জানা নেই ।
উপজেলা নির্বাচন কর্মকতা ও রিটানিং অফিসার মো: বদর উদ-দোজা ভূইয়া বলেন, মাঠে মোবাইল কোর্ট তৎপর রয়েছে। তারা

কাজ করছে আচরণ বিধি লংঘনের অভিযোগ পেলে তাৎক্ষনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে। সুষ্ঠ ভোটাধিকার প্রয়োগের স্বার্থে সব ধরণের ব্যবস্থা নেয়া হবে ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here