মুন্সিগঞ্জে ভুগর্ভস্থের পানির স্থর দ্রুত নিচের দিকে নেমে যাচ্ছে

মোহাম্মদ সেলিম ও গোলাম আশরাফ খান উজ্জ্বল: শুক্রবার, ২৩ নভেম্বর ২০১৮, মুন্সিগঞ্জ নিউজ ডটকম:

মুন্সিগঞ্জে ভুগর্ভস্থের পানির স্থর দ্রুত নিচের দিকে নেমে যাচ্ছে। এর ফলে একটা সময়ে মুন্সিগঞ্জে বিশুদ্ধ পানির তীব্র সংকট দেখা দেয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে এখানকার পানি বিশেজ্ঞরা মনে করছেন। তবে এই পরিস্থিতির সবচেয়ে ভয়াবতার শিকার হতে পারে মুন্সিগঞ্জ পৌরসভারবাসী ও মিরকাদিম পৌরসভারবাসী। এ মুহূর্তে এ দু’টি পৌরসভাতেই পানির স্থর দ্রুত নিচের দিকে নেমে যাচ্ছে বলে পানি বিশেজ্ঞরা দাবি করছেন।

মুন্সিগঞ্জের পশ্চিম মুক্তারপুরে ভারি শিল্পকারখানায় গভীর নলকূপ বসানোর কারণেই এখানকার দু’টি পৌরসভায় পানির স্থর দ্রুত নিচের দিকে নেমে যাচ্ছে বলে অনেকেই ধারণা করছেন। তাদের দাবি হচ্ছে একটি গভীর নলকূপ থেকে যখনি পানি উত্তোলন করা হয়, তখন এর আশপাশের কয়েক মাইলের মধ্যে পানি শূণ্য হয়ে যায়। আর তা সহসা পূরণ হয় না। এর ফলে ধীরে ধীরে মাটির নিচের স্থরে পানির শূণ্যতা দেখা দেয়।

মুন্সিগঞ্জ পৌরসভা ও মিরকাদিম পৌরসভাটি দু’টি ধলেশ্বরী নদী দ্বারা বেষ্টিত হওয়া সত্বেও এখানে পানির স্থস্তর দ্রুত নিচ্রে দিকে নেমে যাচ্ছে।

মুন্সিগঞ্জের জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী অধিদপ্তরের সহকারী প্রকৌশলী হুমায়ুন কবীর বলেন, এ পরিস্থিতি উত্তোরণের জন্য পশ্চিম মুক্তারপুরে ভারি শিল্প কারখানা গুলোতে সারভেজ ওয়াটার প্লান পদ্ধতিতে যদি নদী থেকে পানি উত্তোলন করা হয় তবে মুন্সিগঞ্জে এ পরিস্থিতির শিকার হওয়ার সম্ভাবনা একেভারেই নেই। কারণ হচ্ছে ভারি শিল্প কারখানার পাশ দিয়ে ধলেশ্বরী নদী ও শীতলক্ষ্যা নদী প্রবাহিত হচ্ছে। সেখান থেকেই সারফেজ ওয়াটার প্লান বাস্তবায়ন করা খুবই সহজ বলে তিনি মনে করেন। তবে এ বিষয়ে সরকারি সিদ্ধান্ত থাকলে ভালো হয়।

মুন্সিগঞ্জ পৌরসভার পানি বিভাগের তত্ত্বাবধায়ক মো: আনিসুর রহমান বলেন, গত ৮ বছর আগে অথ্যাৎ ২০০০ সালের দিকে মুন্সিগঞ্জ পৌরসভার পানির স্বাভাবিক স্থস্তর ছিলো ২০ ফুট নিচে। এখন ২০১৮ সালের দিকে সেই পানির স্বাভাবিক স্থস্তর ২০ ফুটের নিচের পরিবর্তে ৪৫ ফুট নিচে নেমে গেছে। ৮ বছরে এখানকার পানির স্থস্তর আরো ২৫ ফুট বেশি নিচে নেমে গেছে। এতে প্রতিয়মান হচ্ছে যে মুন্সিগঞ্জের পানির স্থস্তর দ্রুত নিচের দিকে নেমে যাচ্ছে। এ পরিস্থিতি সামাল দিতে মুন্সিগঞ্জ পৌরসভার হাটলক্ষিগঞ্জ গ্রামের ধলেশ্বরী নদীর পাড়ে সারভেজ ওয়াটার প্লান প্রকল্প বাস্তবায়ন হচ্ছে। মুন্সিগঞ্জ পৌরসভায় সারভেজ ওয়াটার প্লান প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হলে ঐ পরিস্থিতি থেকে মুন্সিগঞ্জ পৌরবাসি অনেকটাই এ থেকে মুক্তি পাবে।

মুন্সিগঞ্জ পৌরসভায় পানি উত্তোলনের জন্য ৬টি পাম্প ষ্টেশন রয়েছে। এ উৎপাদিত নলকূপের হর্স পাওয়ার হচ্ছে ২০ থেকে ২৫ এইচ.পি ক্ষমতা সম্পন্ন। মাটির ভূ পৃষ্ঠের নিচ থেকে পানি উপরে তোলার জন্য এ ধরণের হর্স পাওয়ার ব্যবহার করতে হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here