আত্মহত্যা করলেন বেকার অভিনেতা

03-ভারতের টেলিভিশন অভিনেতা মনমীত গ্রেওয়াল আত্মহত্যা করেছেন। গত শুক্রবার রাতে নেভি মুম্বাইয়ে নিজ বাড়িতে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন তিনি। তবে দুঃখজনক বিষয় হলোÑ৩২ বছর বয়েসি মনমীতকে বাঁচানোর সুযোগ থাকলেও প্রতিবেশীরা কেউ এগিয়ে আসেননি। বেডরুমে স্বামীর দেহ ঝুলতে দেখে তাকে বাঁচানোর জন্য চিৎকার করতে থাকেন মনমীতের স্ত্রী। কিন্তু কোনো প্রতিবেশী সেই ডাকে সাড়া দেননি।

মিড-ডে এ খবর প্রকাশ করেছে। করোনার তাণ্ডবে ভারতে লকডাউন চলমান রয়েছে। এ পরিস্থিতিতে সব ধরনের শুটিং বন্ধ রাখা হয়েছে। এতে করে দীর্ঘ দিন ধরে শিল্পী-কলাকুশলীরা বেকার হয়ে পড়েছেন। মনমীতও অনেক দিন ধরে ঘরে বেকার বসে ছিলেন। তেমন কোনো কাজও যোগাড় করতে পারছিলেন না।

অন্যদিকে বন্ধুদের কাছ থেকে আনা ধারের অর্থও পরিশোধ করতে পারছিলেন না। দিনে দিনে দেনায় ডুবছিলেন মনমীত। বেকারত্বের হতাশা থেকে আত্মহত্যা করেছেন তিনি। মনমীতের বন্ধু মনজিৎ সিং সংবাদমাধ্যমটিতে বলেনÑসন্ধ্যাবেলায় নর্মাল ছিল মনমীত। তার কিছুটা পরে নিজের ঘরে গিয়ে দরজা বন্ধ করে দেয়।

তখন ওর স্ত্রী রান্নাঘরে খাবার তৈরি করছিলেন। হঠাৎ চেয়ার পড়ে যাওয়ার শব্দ শুনে বেডরুমে দৌড়ে আসেন, মনমীতকে বাঁচানোর চেষ্টা করেন। তবে হাজার চিৎকার সত্ত্বেও কেউ এগিয়ে আসেনি। পরে এক সিকিউরিটি গার্ড এসে মনমীতের গলা থেকে ওড়না কেটে নিকটবর্তী হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করে। মনজিৎ সিং আরো জানান,

বাড়ি ভাড়া দেওয়ার জন্য সাড়ে ৮ হাজার রুপিও ছিল না মনমীতের। বন্দক রাখা ছিল স্ত্রীর সোনার গহনা। এই চাপ থেকে বাঁচার জন্য আত্মহননের পথই বেছে নিয়েছে মনমীত। ‘আদত সে মজবুর’, ‘কুলদিপাক’-এর মতো ধারাবাহিকে অভিনয় করেছিলেন মনমীত গ্রেওয়াল। এ ছাড়া বেশ কিছু বিজ্ঞাপনেও কাজ করেছেন এই অভিনেতা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here