মাশরাফির দেড়যুগের সঙ্গী ব্রেসলেট নিলামে

02-মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে দুস্থ হয়ে পড়া মানুষদের সহায়তা করতে ব্যক্তিগতভাবে এগিয়ে এসেছেন বাংলাদেশের তারকা ক্রিকেটাররা। সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম, সৌম্য সরকার, তাসকিন আহমেদ ও অনূর্ধ্ব-১৯ যুব বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক আকবর আলীসহ অনেকেই তাদের প্রিয় স্মারক নিলামে তুলেছেন। বসে থাকেননি মাশরাফি বিন মুর্তজাও।

তার ক্রিকেট ক্যারিয়ারের ১৮ বছরের সঙ্গী ‘ব্রেসলেট’ নিলামে তুলেছেন বাংলাদেশের সাবেক অধিনায়ক। শনিবার বিকাল পাঁচটা থেকে আয়োজনকারী প্রতিষ্ঠান অকশন ফর অ্যাকশনের ফেসবুক পেজে মাশরাফির দেড় যুগের সঙ্গী প্রিয় ব্রেসলেটটি নিলাম শুরু হয়েছে। মাশরাফির দেড় যুগের সঙ্গী প্রিয় ব্রেসলেটটি ভিত্তিমূল্য ধরা হয়েছে ৫ লাখ টাকা। প্রতিষ্ঠানটি ফেসবুক পোস্টে জানিয়েছে,

এই আইটেমটির সর্বনিম্ন মূল্য ৫ লাখ টাকা। বিডিং শেষ হবে আগামী রোববার রাত সাড়ে দশটা থেকে শুরু লাইভের মাধ্যমে। যদিও নিলামের আগেই মাশরাফির ব্রেসলেট কেনার ব্যাপারে আগ্রহ দেখিয়েছেন গ্রামীণফোন ও দুটি বেসরকারি ব্যাংক। ‘অকশন ফর অ্যাকশনে’র কর্মকর্তা আরিফ হোসেন এ ব্যাপারে বলেছেন, ‘আমরা মাশরাফির ব্রেসলেটের নিলাম নিয়ে খুব উৎসাহী। ব্যাপক সাড়া পেয়েছি এরই মধ্যে। নিলাম শুরুর আগেই আমরা গ্রামীণফোনের কাছ থেকে সাড়া পেয়েছি।

গ্রামীণফোনের সঙ্গে দুটি বেসরকারি ব্যাংকও চাইছে মাশরাফির দীর্ঘদিনের সঙ্গী হাতের ব্রেসলেটটি নিলামে কিনে নিতে। আমার অবশ্য নিলাম প্রক্রিয়া শেষেই বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করবো।’ করোনাকালের শুরু থেকেই জাতীয় দলের সফলতম অধিনায়ক মাশরাফি দুস্থ মানুষদের নানাভাবে সাহায্য সহযোগিতা করছেন। নিজ এলাকা নড়াইলে দুইজন চিকিৎসক দিয়ে ভ্রাম্যমাণ অ্যাম্বুলেন্স চিকিৎসাসেবা চালু করেছেন।

এছাড়াও অসহায়তদের জন্য নানা ধরনের সেবামূলক কার্যক্রম পরিচালনা করছেন তিনি। এবার ক্ষতিগ্রস্তদের সাহায্য করতে নিজের দেড়যুগের সঙ্গী ব্রেসলেট নিলামে তুলেছেন। নিলামে ব্রেসলেট থেকে প্রাপ্ত অর্থের পুরোটাই দুস্থদের সাহাযার্থে ব্যয় করা হবে।

করোনায় ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে দাঁড়াতে এর আগে সাকিব তার একটি ব্যাট ২০ লাখ টাকায় বিক্রি করেছেন। মুশফিক শুক্রবার পাকিস্তানের ক্রিকেট তারকা শহীদ আফ্রিদির কাছে তার প্রথম ডাবল সেঞ্চুরির ব্যাটটি বিক্রি করেছেন। যুব বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক আকবর আলীও তার জার্সি ও গ্লাভস ১ লাখ ৭০ হাজার টাকায় বিক্রয় করেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here