মেহেরপুরে পরিচ্ছন্নতাকর্মীর অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার

মেহেরপুরের গাংনীতে সুন্দরী (৫০) নামের এক পরিচ্ছন্নতাকর্মীর অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুর ১২ টায় উপজেলার বামুন্দী বাজারের পাশে একটি বাড়ি থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়।

সুন্দরী খাতুন নিশিপুর গ্রামের বাসিন্দা ও দৌলৎপুর এলাকার রুস্তম আলীর স্ত্রী। স্থানীয়রা জানান, দৌলতপুর উপজেলার বাসিন্দা রুস্তুম আলীকে এক বছর পূর্বে বিয়ে করে সুন্দরী খাতুন।

সে তার স্বামীকে নিয়ে বামুন্দী বাজারের পাশে সাইদুর রহমান টবুর বাড়িতে ভাড়াটিয়া হিসেবে বসবাস করত। হাটের দিন বামুন্দী বাজার পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নের করতো দুজনে। ঈদের দিন ২৫ শে মে সকালে দিকে তাদের অনেকে দেখলেও দুপুরের পর থেকে তাদের দেখা মেলেনি তাদের।

গাংনী থানার ওসি মোঃ ওবাইদুর রহমান জানান, স্থানীয় লোকজন ঐ বাড়ির পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় লাশের গন্ধ পেয়ে পুলিশকে খবর দিলে লাশ উদ্ধার করা হয়। যেহেতু লাশ ঘরে রেখে বাইরে তালা দেয়া ছিলো একারনে প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে সুন্দরীকে হত্যা করার পর রুস্তুম আলী পালিয়ে গেছে।

স্ত্রীর প্ররোচরনায় স্বামীর আত্মহত্যার অভিযোগ: এদিকে গাংনীতে স্ত্রীর প্ররোচরনায় স্বামী টোকন (২২) আত্মহত্যা করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। গত বুধবার দিবাগত রাতে উপজেলার নিশিপুর গ্রামের নিজ বাড়িতে

পারিবারিক কোলহের জেরে আত্মহত্যা করে সে। টোকন নিশিপুর গ্রামের ইফার আলীর ছেলে। টোকনের পরিবার জানায়,ঈদের পরে টোকন তার শশুরবাড়ি হোগলবাড়িয়া গ্রামে যায়।

সেখান থেকে বাড়ি ফিরে গলায় ওড়না পেচিয়ে আত্মহত্যা করে। আত্মহত্যার কারণ সম্পর্কে নিশ্চিত কোন কারণ জানাতে না পারলেও তারা জানিয়েছেন বৌয়ের সাথে কোলহের জেরে তার প্ররোচনায় সে আত্মহত্যা

করতে পারে অভিযোগ করেন। স্থানীয়রা জানান, টোকনের বৌ ও তার পরিবারের সদস্যদের সাথে পারিবারিক বিভিন্ন বিষয়ে মতনৈক্য’র সৃষ্টি হয় টোকনের।

এ নিয়ে বাকবিতন্ডার এক পর্যায় টোকন তার নিজ বাড়িতে এসে অভিমানে আত্মহত্যা করে। গাংনী থানা পুলিশের ওসি মো. ওবাইদুর রহমান এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন,ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। আত্মহত্যার কারণ সম্পর্কে জানতে তদন্ত চলছে। লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে নেয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here