সিরাজদিখানে শিশু নির্যানের প্রতিবাদ করায় ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ!

received_3411378998874511সিরাজদিখানে শিশু নির্যাতনের প্রতিবাদ ও নির্যাতনকারীর বিচার করা কথা বলায় জৈনসার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম দুদু ও তার লোকজনের বিরুদ্ধে থানায় মিথ্যা অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে বলে
অভিযোগ পাওয়া গেছে রুহুল আমিন (৩৫) নামে এক আম বিক্রেতার বিরুদ্ধে। সে উপজেলার ভাটিমভোগ গ্রামের আইয়ুব আলী শেখের পুত্র। এ নিয়ে স্থানীয় ভাবে বেশ চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।
এ ব্যপারে জৈনসার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম দুদু সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করে বলেন, আমার বিরুদ্ধে স্বড়যন্ত্র মূলক ভাবে থানায় মিথ্যা অভিযোগ করা হয়েছে। যে আমার বিরুদ্ধে হত্যার হুমকি দেওয়ার অভিযোগ করেছে মূলত সে আমার যোগ্য ব্যক্তি না।
তাকে প্ররোচনা দিয়ে অভিযোগ করানো হয়েছে বলে আমি মনে করি। আমি একজন ইউপি চেয়ারম্যান হিসেবে স্থানীয়রা আমার কাছে বিচার চাইতেই পারে এবং কোন অন্যায় হতে দেখলে আমি সেটার প্রতিবাদ করতেই পারি। রুহুল আমিন ছেলে দুইটাকে মারধর করেছে বলে বাজারের লোকজন আমাকে জানায়। আমি তাকে বলি কেন তুই ছেলে দুইটাকে মারলি।
এ বলে আমি তার বিচার করবো বলার পর আমাকে সে বলে আমি বিচার বসবো না আপনি যা পারেন করেন এই বলে রুহুল মোবাইল বন্ধ করে দেয় । পরে শুনি থানায় গিয়ে আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছে। পুলিশ এসে বাজারের লোকজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে এবং আমার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগের কোন প্রকার সত্যতা পায়নি।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত ২৯ জুন টংগীবাড়ী উপজেলা থেকে দুই শিশু ভাটিমভোগ বাজারে আম বিক্রি করার জন্য আসে এবং অভিযুক্ত রুহুল আমিনের দোকানের সামনে ৩০ টাকা কেজি আম বিক্রি করে। রুহুল আমিনের দোকানের আমের চাইতে ১০ টাকা করে কেজিতে কম বিক্রি করায় রুহুল আমিন ওই দুই শিশুর উপর চড়াও হয়ে চর থাপ্পর, কিল, ঘুষি ও লাথি দিয়ে তাদেরকে আম বিক্রি করতে বাধা দিয়ে সেখান থেকে তাড়িয়ে দেয়।
এ নিয়ে বাজারের লোকজন প্রতিবাদ করে এবং বিষয়টি স্থানীয় চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম দুদুর নিকট জানায়। ওইদিন রাতে চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম দুদু রুহুল আমিনের কাছে বিষয় জানতে চেয়ে শিশুদের মারপিট করার প্রতিবাদ করে এবং তার উপযুক্ত বিচার করার কথা বললে রুহুল আমিন তাকে বলে আমি বিচার বসবো না আপনি যা পারেন করেন এই বলে রুহুল মোবাইল বন্ধ করে দেয় ৷
পরে গত ১ জুলাই ভুক্তভোগী ওই দুই শিশুর মাতা বাদী হয়ে রুহুল আমিনকে বিবাদী করে সিরাজদিখান থানায় লিখিত অভিযোগ করলে শিশু নির্যাতনের অভিযোগ থেকে বাঁচতে স্থানীয় এক প্রভাবশালীর প্ররোচনায় রুহুল আমিন বাদী হয়ে চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম দুদুসহ তার লোকজনকে বিবাদী করে হত্যার হুমকি দেওয়ার
অভিযোগ এনে সিরাজদিখান থানায় আরো একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করে। লিখিত অভিযোগের প্রেক্ষিতে থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে।
ভাটিমভোগ বাজার বনিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. গনি হাওলাদার জানান, ওইদিন রুহুল আমিন বাজারে আম বিক্রি করছিলো। ছেলে দুইটা তার আমের চাইতে কম দামে আম বিক্রি করায় দুপুর অনুমান ২ টার দিকে দুজনকে মারপিট করে রুহুল আমিন। আমরা তার প্রতিবাদ করে চেয়ারম্যান সাহেবকে জানাই। পরে শুনি সে নাকি আমাদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করেছে।
জৈনসার ৮নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য তোফাজ্জল শেখ জানান এই রুহুলকে নিয়ে এলাকায় অনেক বার বিচার সালিশ হয়েছে। গত ২৫ তারিখে রুহুল কাঠাল বিক্রির টাকা ভাগাভাগি নিয়ে তার জন্ম দাতা মা বাবা ও তার আপন ছোট ভাই মামুনকে অনেক মারপিট করে।
সিরাজদিখান থানার সেকেন্ড অফিসার এস,আই মো. জোবায়ের জানান, ঘটনাটি ভুল বোঝাবুঝির কারণে ঘটেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here