দিনভর বৃষ্টিতে দীঘিরপাড় বাজারে জলাবদ্ধতা: প্রয়োজন ড্রেনেজ ব্যবস্থা

FB_IMG_1595314730121দিনভর বৃষ্টিতে টঙ্গীবাড়ি উপজেলার দীঘিরপাড় বাজারে পানিতে পানিতে জলাবদ্ধতা দেখা দিচ্ছে। এখানে জলবদ্ধতার পানি সরিয়ে নিতে প্রয়োজন পরিকল্পিত ড্রেনেজ ব্যবস্থা গড়ে তোলা। বর্তমানে বাজারে সেই পরিবেশ না থাকায় এমনটা হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। বাণিজ্যিক বাজার হিসেবে জেলার বৃহত্তম দীঘিরপাড় বাজারের সুখ্যাতি রয়েছে সবখানে।

এখানে এর আশপাশের একাধিক ইউনিয়নের লোজজন ও বিপনি বিতানের সদাই এ বাজার থেকে কেনা কাটা করে থাকে বলে এখানকার ব্যবসায়িরা জানিয়েছে। এছাড়া শরীয়তপুরের নড়িয়ার লোকজনরা এখান থেকেই কেনা কাটা করে থাকে।

এসব কারণে এ বাজারে চাহিদা রয়েছে আশপাশের লোকজনের কাছে। এখানে যেমন রয়েছে সড়ক পথ। তেমনটি রয়েছে নদী পথও। এ বাজারটি নদীর কুলে ঘেষে থাকায় পণ্য পরিবহনে সহজ ব্যবস্থা থাকায় এখানে দিনভর ব্যবসা ও বাণিজ্যে ভরপুর থাকে।

FB_IMG_1595314742877 তাছাড়া শুক্রবারের হাটে এখানে জমজমাট ভাব তৈরি হয়ে থাকে। বাজারের ১নং সরু গলিসহ কয়েকটি শাখা গলিতে বৃষ্টির পানি জমে কর্দমা ও জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে।

এতে করে দীঘিরপাড় বাজার ব্যবসায়ী ও সাধারণ মানুষের নানান সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে। বর্তমানে দীঘিরপাড় বাজারে প্রায় সাড়ে ৭ শতাধিক দোকান রয়েছে। এরমধ্যে ৩টি সরু গলি ও ৭ ও ৮টি শাখা গলির মধ্যে মাঝখানের সরু গলিতে একটি ড্রেনেজ ব্যবস্থা থাকলেও সে ড্রেনটি ময়লা আবর্জনায় বন্ধ হয়ে পড়েছে।

সবচেয়ে বেশি নাজুক অবস্থায় রয়েছে বাজারের পূর্ব পাশের ১নং মসজিদ গলিটি।ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায় সমান্য বৃষ্টি হলেই পানি ও কাদায় একাকার হয়ে যায়। উল্লেখ্য প্রতি বছর এই বাজার হতে প্রায় ১ থেকে দেড় কোটি টাকা রাজস্ব আয় করে থাকে এখান থেকে।

কিন্তু বাজার কমিটির একটু সুদৃষ্টির অভাবে ড্রেনেজ ব্যবস্থা থমকে আছে বলে মনে করছেন ব্যবসায়ীরা। এ বিষয়ে দীঘিরপাড় বাজারের মদীনা রাইস মিল এর মালিক শাহাদাত হোসেন ও মুদি দোকানী আব্দুল কুদ্দুস সরদার জানান, একটু বৃষ্টি হলেই রাস্তার দু’পাশে পানি জমে কাদায় একাকার হয়ে যায়।

এতে করে আমাদের রোগ বালাইসহ বিভিন্ন সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে।এই গলিতে একটি ড্রেনেজ এর ব্যবস্থা করা হলে সব সমস্যার সমাধানও হবে পাশাপাশি বাজারের সৌন্দর্য বৃদ্ধি পাবে। তাই আমরা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে জোড়ালো দাবি জানাচ্ছি যে এই ১নং মসজিদ গলিতে যেনো একটি ড্রেনেজের ব্যবস্থা করা হয়।

এবিষয়ে বাজার কমিটির সভাপতি ও দীঘিরপাড় ইউপি চেয়ারম্যান আরিফুল ইসলাম হালদার জানান, দীঘিরপাড় বাজারের পূর্বপাশের মসজিদ গলিতে পর্যাপ্ত জায়গা না থাকার কারণে ড্রেনেজ ব্যবস্থা গ্রহণ করা যাচ্ছে না। এখন বর্ষা মৌসুম, বর্ষা মৌসুম শেষে ভেবেচিন্তে দেখবো কর্দমা ও জলাবদ্ধতা নিরসনে কি করণীয়।

এ ব্যপারে টঙ্গীবাড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোসাম্মৎ হাসিনা আক্তার জানান, এবিষয়ে এর আগে আমাকে কেউ অবগত করেনি, আপনার মাধ্যমে জানতে পারলাম। বাজার কমিটির সাথে আলোচনা সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here