টঙ্গিবাড়ীতে দাদিকে দেখতে গিয়ে নাতির উপর হামলা

received_352592922790260-620x330টঙ্গিবাড়ী জমিসংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে হামলায় আহত দাদি ও কাকিকে দেখতে হাসপাতালে যাওয়ার পথে বুধবার সন্ধায় প্রতিপক্ষের হামলায় আহত হয়েছেন নাতি শিপন।

ওই ঘটনায় ২ দিনে প্রতিপক্ষের হামলায় একই পরিবারের ৩ নারীসহ ৪ জন আহত হয়েছে। গুরুতর আহত হেনা বেগম টঙ্গিবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে৷

জানাগেছে,উপজেলার ধামারণ গ্রামের আউয়াল ঢালীর সাথে প্রতিবেশী চাচা আলম ঢালীগং দের সাথে জমি সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে বিরোধ চলে আসছিলো। এর জের ধরে গত মঙ্গলবার সকাল ৯টার দিকে আউয়াল ঢালির বাড়িতে হামলা চালায় প্রতিপক্ষের আলম ঢালী ও তার ছেলে সোহেল ঢালি।

এ সময় তারা আউয়াল ঢালির স্ত্রী সেলিনা বেগম এবং পুত্রবধূ হেনা বেগমকে পিটিয়ে গুরুতর জখম করে। পরে এলাকাবাসী তাদের উদ্ধার করে টঙ্গীবাড়ী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে ভর্তি করে।

এ ঘটনায় আউয়াল ঢালীর নাতি শিপন ঢালী তার আহত দাদি সেলিনা বেগম এবং কাকি হেনা বেগমকে টঙ্গিবাড়ী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে দেখতে যাওয়ার পথে শুয়াপাড়া এলাকায় বুধবার সন্ধায় ফের হামলা চালায় প্রতিপক্ষের লোকজন।

এ সময় শিপন ঢালীকে পিটিয়ে ডান হাত ভেঙ্গে ফেলে এবং তার স্ত্রী আলেয়া বেগমকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে সোহেল ঢালী, ইমন ঢালী গংরা। পরে তাদের চিৎকারে এলাকাবাসী এগিয়ে এসে মুন্সিগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

এ ব্যাপারে টঙ্গিবাড়ী থানা ওসি হারুন আর রশিদ জানান, মারামারির ঘটনায় অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যাবস্থা নেওয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here