রতনপুরের রাস্তায় ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে

IMG_8457মোহাম্মদ সেলিম ও তুষার আহাম্মেদ:

মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলার পঞ্চসার ইউনিয়নের আনসার ক্লাবের লিংক রোড রতনপুর গ্রামের রাস্তাটিতে ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে। চলতি মৌসুমে চলমান বৃষ্টির সময় এখানে প্রথমে ভাঙ্গন দেখা দেয়। শুরুতে অল্প ভাঙ্গন থাকলেও পরে পানি ধীরে ধীরে কমে যেতে থাকলে এ ভাঙ্গন বড় আকার ধারণ করে। ভাঙ্গনের সাথে রাস্তার পাশে গাছগুলোও পরে গেছে।

বড় আকারে ভাঙ্গন থাকায় এখন এ পথে বড় ধরনের কোন যানবাহন চলাচল করতে পারছে না বলে এলাকাবাসী জানিয়েছে। বর্তমানে এখন এ পথে শুধুমাত্র অটো আর মিশুক চলাচল করছে।

ভাঙ্গন এলাকার রাস্তার পাশে বড় ধরণের একাধিক পুকুর থাকায় এখানের ভাঙ্গনের মাত্রা একটু বেশি বলে অনেকের মনে হচ্ছে। এর পুকুর গুলো রাস্তার পাশে একটু খাড়া ধরণের থাকায় এ পথের রাস্তাটি ভেঙ্গে পুকুরে পড়েছে।

এ পথের রাস্তা নির্মাণের সময় রাস্তার পাশে পুকুরকে কেন্দ্র গাইড ওয়াল নির্মাণ করা হলে এমনটি হতে বলে এখানকার অধিবাসীরা মনে করছেন। এ পথ দিয়ে অনেক গুলো গ্রামের মানুষ প্রতিদিন যাতায়াত করে থাকেন। সেই হিসেবে এ পথের গুরুত্ব রয়েছে এখানে। এ পথের অনেকটি অংশ পিচ ডালাই হলেও এরপর রয়েছে ইটের রাস্তা।

তারপওে রয়েছে মাটির কাঁচা রাস্তা। পিচের রাস্তার পওে ইটের রাস্তা ও মাটির রাস্তায় বর্তমানে বেহাল দশা বিরাজ করছে। ইটের রাস্তার বেশিরভাগ অংশই ইতোমধ্যে ইট উঠে গিয়ে খানাখন্দে ভরে উঠেছে। সেখানে বৃষ্টির পানিতে বর্তমানে জমাট বাঁধছে।

তাতে চলাচলে নানা রকমের অসুবিধা দেখা দিচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে। মাটির রাস্তার অবস্থা আরো নাজুক বলে এলাকাবাসী দাবি করছে। এ পথ দিয়ে যেসব গ্রামের মানুষ চলাচল করছে সেসব গ্রাম গুলো হচ্ছে, পঞ্চসার ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের পূর্ব, পশ্চিম ও দক্ষিণ রতনপুর (তিনটি গ্রাম), চাম্পাতলা, রামেরগাঁও, সরদারপাড়া। এ

এলাকাটি কৃষি প্রধান গ্রাম হলেও রাস্তার এ অবস্থার কারণে এ পথ দিয়ে কোন কৃষি যন্ত্রপাতি আনা নেয়া করা যাচ্ছে বলে এলাকাবাসী জানিয়েছে। এখানকার শেষ প্রান্তের রাস্তায় রয়েছে মুন্সীগঞ্জ পৌরসভার রাস্তা। সেই হিসেবে এ পথ দিয়ে মুন্সীগঞ্জ পৌরসভার অনেক লোকজন যাতায়াত করে থাকে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here