গজারিয়ায় ব্যবসায়ীকে বেধে নির্যাতনের অভিযোগ

121206283_1041270049634831_3238749165680566517_nগজারিয়ায় আমানউল্লাহ (৩৮) নামে এক ব্যবসায়ীকে রশি দিয়ে বেঁধে নির্যাতনের পর লক্ষাধিক টাকা ছিনতাইয়ের অভিযোগ পাওয়া গেছে।
গত ০৭ অক্টোবর (বুধবার) সন্ধ্যায় গুরুত্বর আহত টাইলস ব্যবসায়ী আমান উল্লাহ কে উদ্ধার করে
উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছে গজারিয়া থানা পুলিশ।
আহত ব্যবসায়ী বাদী হয়ে কয়েক জনের নাম উল্লেখ করে ১০ থেকে ১২ জন যুবক কে আসামী দিয়ে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন।
আমান উল্লাহ উপজেলার ভবেরচর ইউনিয়নে পৈক্ষারপাড় গ্রামের সুবাহানের ছেলে ও বিসমিল্লাহ টাইলস দোকানের মালিক।
অভিযোগ পত্রে বাদী ব্জানান, “তিনি গত ৭ অক্টোবর (বুধবার) সন্ধ্যায় পিকাপ ভ্যানে করে টাইলস নিয়ে পাশের ইউনিয়নের চৌদ্দকাহনিয়া গ্রামের সৌদি আরব প্রবাসী আনোয়ার হোসেনের বাড়িতে পৌছে দিতে যান। এসময় তিনি মোবাইল ফোনে কথা বলতে বলতে একপর্যায়ে সিঁড়ি বেয়ে আনোয়ার হোসেনের নির্মাণাধীন একতলা
ভবনের ছাদে গিয়া দেখিতে পায় স্থানীয় ১২/১৫ জন যুবক ছাদে বসে নেশা জাতীয় কি যেন সেবন করিতেছে। তখন চৌদ্দকাহনিয়া গ্রামের বখাটে যুবক সজিব, জয়, জাহিদ, ইয়াছিন, সাকিব তাকে চিনতে পেরে তাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করিতে থাকে। এসময় তিনি প্রতিবাদ করিলে তারা দেশীয় অস্ত্র রড কাঠের ডাঁসা নিয়ে হত্যার উদ্দেশ্যে তাকে রশি দিয়ে বেঁধে মারধর করে একপর্যায়ে ভবনেরব ছাদ থেকে তাকে নিচে ফেলে দেয় যুবকরা।
তিনি আরো বলেন, তখন তার আত্মচিৎকারে তার দোকানের শ্রমিক ও আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে তারা আমানউল্লাহ কে হত্যার হুমকি দিয়ে দ্রুত দৌড়াইয়া পালিয়ে যায়। এসময় বখাটে যুবকরা তার সাথে থাকা নগদ ৮০হাজার টাকা, একটি টার্চ মোবাইল ছিনিয়ে নিয়ে যায় বলে জানানা। এবিষয়ে আমানউল্লাহ গজারিয়া থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।
এ প্রসঙ্গে গজারিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত ওসি তদন্ত ইন্সপেক্টর মামুনুর রশীদ আল মামুন জানান খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনার স্থল গিয়ে আমান উল্লাহ কে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত সাপেক্ষ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here