পূর্ব শত্রুতার জেরে মিরকাদিমের তিলারদিতে ক্ষুরের আঘাতে জখম ২: নগদ অর্থ স্বর্ণ লুটপাট

207ce80b0aabf71950fc14d1025badd8.0মোহাম্মদ সেলিম ও তোফাজ্জ্বল হোসেন

মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলার মিরকাদিম পৌরসভার তিলারদি গ্রামে পূর্ব শত্রুতার জের হিসেবে ক্ষুর দিয়ে ২ যুবককে জখম করা হয়েছে । ঘটনার জের হিসেবে ক্ষুরের আঘাতপ্রাপ্ত ব্যক্তির বাড়িতে স্বর্ণ ও নগদ অর্থ লুটপাটের ঘটনার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় এলাকায় টান টান উত্তেজনা বিরাজ করছে । একটি পক্ষের গ্রুপ জটলা পাকিয়ে ঘটনাস্থল থেকে ১ কি.মি দূরে অবস্থান করছে। সে হিসেবে পুনরায় হামলার ঘটনা আবারো ঘটতে পারে বলে এলাকাবাসি আশংকা করছে। পরিস্থিতি সামাল দিতে সেখানে বিপুল পরিমাণ পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে । এ ঘটনায় ক্ষুরের আঘাতপ্রাপ্ত নাসির কে মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে ।

27529b7a95a6450738045e8e775031f3.0জানা যায়, গতকাল রোববার সকাল ১১ টায় তিলারদি গ্রামের মোঃ জিল্লুর রহমান ও প্রতিবেশি নাসির কে নিয়ে বাজারে যাওয়ার জন্য মিরকাদিম খাদ্য গুদামের সামনে আসলে পূর্বে থেকে ওৎ পেতে থাকা ওসমান (৩০) ও রিংটু (২৭) তাদের উপর অতর্কিত হামলা চালায়। সে সময় তাদের হাতে থাকা ক্ষুর দিয়ে মারাত্মক আহত হয় নাসির এবং গুরুতর আহত হয় জিল্লুর। ক্ষুরে আঘাতপ্রাপ্ত নাসিরকে মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তাদের আত্ম চিৎকারে গ্রামবাসি ছুটে আসলে রিংটু ও ওসমান কে গ্রামবাসি আটক করে।

131757997_417460609625067_4825842847279613614_nএদের মধ্যে রিংটু মোল্লা বাড়ির ও ওসমান নগরের বলে জানা গেছে। এ খবর নগরে ছড়িয়ে পড়লে ৫০/৬০ জনের একটি গ্রুপ পুনরায় তিলারদি গ্রামে আসে। এদের মধ্যে মাসুদ, মন্টু, আলামিন, অপূর্ব, রিদয়, তুরান, তোফাজ্জল, রমজান, নুর শেখ, মনজিল, রাজিব গংরা ছিলো বলে জিল্লুর জানায়। আগত গ্রুপরা আটককৃত ওসমান ও রিংটুকে সেখান থেকে মুক্ত করে নিয়ে যায়। এরপর তারা সকলে সংঘবদ্ধ হয়ে দেশিয় অস্ত্র নিয়ে জিল্লুর বাড়ির উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়। সেখানে পৌঁছে তারা জিল্লুর ছোট মেয়ে সামিয়াকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ঘরের ভেতর থেকে থাকা জিনিস পত্র লুটপাট করে। জিল্লুর পরিবার থেকে জানা যায়, ঘরে থাকা নগদ ২ লক্ষ টাকা, ৪ ভরি স্বর্ণালংকার হামলাকারীরা লুটে নিয়ে যায় বলে তারা দাবি করেন। জিল্লুর অপর মেয়ে মৌমিতা জানায়, তার মোবাইল সেট সহ নাসিরের মোবাইল সেট নিয়ে গেছে বলে তারা দাবি করেন। জিল্লুর জানায়, হামলার সময় জিল্লুরের বড় মেয়ে ও স্ত্রী বাড়িতে ছিলনা। তিনি আরো জানান, এ ঘটনার খবর হাতিমারা পুলিশ ফাঁড়িকে জানালে তাৎক্ষনিক এস আই জুয়েল ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে আসলে হামলাকারিরা দ্রুত পালিয়ে যায়।

একাধিক সুত্র মতে জানা যায়, চলতি অর্থ বছরের প্রথম বারের মত তিলারদি গ্রামে ১৫ ই আগস্টে বঙ্গবন্ধুর মৃত্যুবার্ষিকি তে খিচুরির আয়োজন করে জিল্লুর। তাতে বাধা প্রদান করে মিরকাদিম পৌরসভার ৬ নং ওয়ার্ড বিএনপির দপ্তর সম্পাদক দোস্ত মোহাম্মদ। ছাত্রদলের তুরান, ৬ নং ওয়ার্ড বিএনপি নুর শেখ গং। এ ঘটনায় জিল্লুর বাদি হয়ে মুন্সীগঞ্জ সদর থানায় মামলা দায়ের করেন। সে মামলা উঠিয়ে নেওয়ার জন্য তাকে একাধিকবার চাপ প্রয়োগ করা হয়। সে সুত্রকে কেন্দ্র করে আজকের এই হামলার ঘটনা ঘটেছে বলে তিনি জোর দাবি করে।

হাতিমারা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের অফিসার রাজিব বলেন, উক্ত ঘটনায় এখনো পর্যন্ত কোন মামলা হয়নি। এবং ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন আছে বলে জানান তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here