মিরকাদিমে আ.লীগের সাংগঠনিক সম্পাদকের হাত-পা ভেঙ্গে দেয়ার ঘটনায় মামলা

observerbd.com_1612177678মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলার মিরকাদিম পৌরসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে কাউন্সিলর প্রার্থী ও আওয়ামীলীগ নেতা আবু তাহেরকে কুপিয়ে জখম করার ঘটনা ঘটনায় ১৮ জনকে আসামি করে মামলা হয়েছে। সোমবার ঘটনার ৩ দিন পর মামলাটি নথিভুক্ত করা হয় সদর থানায়। তবে, ঘটনার পর থেকে সন্ত্রাসীরা এলাকা দাবড়িয়ে বেড়ালেও কেউ গ্রেফতার হয়নি।

গত শুক্রবার (২৯ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে ৯ টার দিকে মিরকাদিম পৌরসভার কমলাঘাট বন্দর এলাকায় দুইবারের জনপ্রিয় কাউন্সিলর ও মিরকাদিম পৌর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু তাহের (৫২)-কে প্রতিপক্ষের একদল দৃস্কৃতকারী পিটিয়ে ও কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। এ ঘটনায় বর্তমান কাউন্সিলর ও কাউন্সিলর পদপ্রার্থী আবু তাহেরের ছেলে তকিবুল হাসান বাদি হয়ে এলাকার কুখ্যাত সন্ত্রাসী জিল্লু, সাইফ আকাশ, সুমন, মাসুদ, নাছির, জনি, শ্যামল, জসিম, খোকন, শিপন, বাবু, জালাল, বদু, রতন, এমদাদ, মোবা চোরা, গরু চোরা বদু ও ঝলক নামের ১৮ জনকে আসামি করে মুন্সীগঞ্জ সদর থানায় মামলা দায়ের করেন।

স্থানীয় সূত্র মতে, মিরকাদিম পৌরসভায় আওয়ামী লীগের দুইপক্ষ মেয়র শহিদুল ইসলাম শাহীন ও গতবারের পরাজিত বিদ্রোহী প্রার্থী মনছুর আহামেদ কালাম গ্রুপের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে দ্বন্দ্ব চলে আসছিলো। আর আবু তাহের শাহীন সমর্থক ও আওলাদ হোসেন কালাম সমর্থক হিসাবে পরিচিত।
আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারি মিরকাদিম পৌরসভা নির্বাচনে তারা দুজনই একই ওয়ার্ড থেকে কাউন্সিলর প্রার্থী হিসাবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে। পূর্ব বিরোধ ও নির্বাচনকে কেন্দ্র করে শুক্রবার সকালে মনছুর আহামেদ কালাম পক্ষের জিল্লু-আকাশ-সুমন-মাসুদ-জনি গং আবু তাহেরের ওপর অতর্কিত হামলা চালায়। এসময় তার শরীরের বিভিন্ন অংশে পিটিয়ে ও কুপিয়ে জখম করে চলে যায়। পরে স্থানীয়দের সহযোগিতায় তাকে উদ্ধার করে মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল নিয়ে আসা হয়।
মামলা সূত্র মতে, মনছুর আহামেদ কালামের লোক জিল্লু-আকাশ-সুমন-মাসুদ-জনি গং আমাদের কমলাঘাট “শোভন ওয়ল মিলে” ঢুকে অতর্কিত হামলা চালিয়ে প্রার্থী আবু তাহেরের হাত-পা ভেঙ্গে দেয়। মাথা ফাটিয়ে ফেলে। পরবর্তীতে গুরুতর অবস্থায় তাহেরকে মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন।
এর আগেও গত ১৬ জানুয়ারি পৌরসভার ভূবনপাড়া এলাকায় পৌর আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মো. নাছির উদ্দিনের বাড়িতে হামলা চালিয়ে বাড়ীঘর ভাঙ্চুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটায়। এ ঘটনায় মনছুর আহামেদ কালাম বাহিনীর জুবায়ের হোসেন জনি গং হামলা চালিয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে।
এদিকে, মিরকাদিম পৌরসভার ৬ নং ওয়ার্ডের নৈদিরপাথর গ্রামে গত ৩১ জানুয়ারি দুপুর আড়াইটার দিকে মনজুরুল ইসলাম, স্ত্রী মাহমুদা বেগম ও ভাই সিরাজুল ইসলামকে মারধর করার অভিযোগ করা হয়েছে। এ ঘটনায় সোমবার কালু মিয়া, মন্টু মিয়া, অপূর্ব, আল আমিন, মাসুদ, অপু, মুরাদ, নান্টু, আহসানুল, জাহিদ, আকাশ, নুর মোহাম্মদ, আব্দুল হক রাজু, রায়হান ও রাজু নামে ১৫জনকে আসামি করে আরেকটি মামলা হয়েছে।
অবজারভার
 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here