শ্রীনগরের বাঘড়ায় চেয়ারম্যান প্রার্থীর বিরুদ্ধে সরকারি সম্পত্তির মাটি বিক্রি করে পুকুর খননের অভিযোগ

bরেজাউল করিম রয়েলঃ

শ্রীনগরে সরকারি সম্পত্তির মাটি বিক্রি করে পুকুর খননের অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার বাঘড়া ইউনিয়ন পরিষদের আগামী নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী আবু নাসের আল তানজিল গত ২ সপ্তাহ ধরে এই মাটি বিক্রি করছেন।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, ভাগ্যকুল ইউনিয়নের কামারগাঁও মৌজার সরকারি সম্পত্তির মাটি কেটে ট্রলিতে করে বিক্রি করা হচ্ছে। স্থানীয়রা জানায়, বাঘড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান প্রার্থী আবু আল নাসের তানজিল প্রতি ট্রলি মাটি ৬শ টাকা করে বিক্রি করেছেন। গত ২ সপ্তাহে প্রায় ৫শ ট্রলি মাটি বিক্রি করা হয়েছে। তানজিল সরকারী জমির বাঁশঝাড় কেটে সেখান থেকে মাটি বিক্রি করে পুকুর তৈরি করে ফেলেছে। তানজিলের ভাতিজা হুমায়ূন বেপারী বলেন,

পুকুর খনন করার জন্য তারা ভাগ্যকুল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কাজী মনোয়ার হোসেন শাহাদাতের কাছ থেকে অনুমুতি নিয়েছেন। কিন্তু কাজী মনোয়ার হোসেন শাহাদাত বলেন, সরকারী সম্পত্তির মাটি কাটার অনুমুতি দেওয়ার আমি কে? এই বিষয়ে তারা আমার নাম ব্যবহার করে ফায়দা নিতে চাচ্ছে।

বাঘড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান প্রার্থী তানজিল জানান,তিনি পৈত্রিক ওয়ারিশ সূত্র মালিক হয়ে খনন করা পুকুর আরো গভীর করেছেন।

অপরদিকে ভাগ্যকুল ভূমি অফিস সূত্রে জানায়, কামারগাঁও মৌজায় তানজিল ১৫৬৯ দাগের ৭ শতাংশ নাল জমির মালিক।যেখানে বর্তমানে পুকুর রয়েছে। কিন্তু তিনি আরো দুটি দাগের মাটি কেটেছেন। এই দুই দাগ অর্পিত সম্পত্তি। এর মধ্যে ১৫৬৬ দাগেই রয়েছে ৫৫ শতক জমি।

ভাগ্যকুল উপ সহকারী ভূমি কর্মকর্তা আঃ হান্নান বলেন, সরকারী স্বার্থ বিবেচনা করে মাটিকাটা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু সরকারী জমির মাটি কেটে বিক্রি করায় তাদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেওয়া হবে কিনা এই বিষয়ে তিনি পরিস্কার করে কিছু বলতে পারেননি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here