গজারিয়া নেশার টাকা না পেয়ে যুবকের আত্মহত্যা

181446_image_url_Lashগজারিয়া উপজেলায় নেশার টাকা যোগাড় করতে না পেরে নিজের শরীরে ধারালো ছুরি ও ব্লেড দিয়ে আঘাত করে এক যুবক আত্মহত্যা করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। বিষয়টি নিছক আত্মহত্যা নাকি পরিকল্পিত হত্যাকান্ড এ নিয়ে তদন্ত শুরু করছে গজারিয়া থানা পুলিশ।

এ ঘটনায় প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিহত যুবকের পরিবারের সদস্য মা, বড় ভাই ও বোনকে আটক করে গজারিয়া থানা নিয়ে আসা হয়েছে। নিহতের নাম হচ্ছে শাহ আলম (২৩)। সে গজারিয়া উপজেলার টেঙ্গারচর ইউনিয়নের বৈদ্যারগাঁও (শিকদার বাড়ি) গ্রামের মৃত নজরুল ইসলামের ছেলে।

গজারিয়া থানার এস.আই আনিসুর রহমান জানান, নিহতের স্বজনদের মাধ্যমে খবর পেয়ে গতকাল শুক্রবার দিবাগত রাত তিনটার দিকে ঘটনাস্থলে তারা গিয়ে দেখতে পান নিহতের লাশ বাড়ির মেঝেতে পড়ে আছে।

স্বজনদের দাবি রাত পৌনে একটার দিকে নেশার টাকা জোগার করতে না পেরে নিজের মাথায় ও হাতে ধারালো ছুরি ও ব্লেড দিয়ে আঘাত করে শাহ আলম। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে তার মৃত্যু হয়েছে বলে স্বজনদের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়। পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে গজারিয়া থানায় নিয়ে আসে।

নিহতের ছোট বোন আমেনা আক্তার ও প্রতিবেশী জহিরুল ইসলাম বলেন, শাহ আলম মাদকাসক্ত ছিল। নিয়মিত সে মাদক সেবন করতো। গতকাল রাতে মাদকাসক্ত হয়ে সে বাড়িতে এসে পরিবারের লোকদের কাছে আরো মাদক কেনার জন্য টাকা চাইতে থাকে।

তারা দাবিকৃত টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানালে নিজেই ছুরি দিয়ে তার মাথায় এবং ব্লেড দিয়ে তার হাতে আঘাত করতে থাকে শাহ আলম। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের কারণে কিছুক্ষণ পরে মারা যায় সে।

গজারিয়া থানার কর্মকর্তা ইনচার্জ মো: রইছ উদ্দিন জানান, বিষয়টি নিছক আত্মহত্যা কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। ছেলেটির দেহের বিভিন্ন অংশে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তদন্তের পর বিস্তারিত বলা যাবে। ময়নাতদন্তের জন্য নিহতের লাশ মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here