গজারিয়ার কৃষকরা ভূট্টা চাষে সময় পার করছে

logo png-full-sizeমো. নাজির হোসেন
গজারিয়া উপজেলায় ভুট্টা চাষে ব্যস্ত সময় পার করছে কৃষকেরা। বাংলাদেশের সবচেয়ে বেশি আলু উৎপাদনশীল এ জেলায়। কৃষকরা আলু উত্তোলনের পর তাদের জমিগুলোতে এখন ভুট্টা চাষ করছেন। দিন দিন গজারিয়া উপজেলায় ভূট্টা চাষ বৃদ্ধি পেয়েছে।

গতবছর রবি ও খড়ি মৌসুমে ১ হাজার ৯০০ শত হেক্টর জমিতে ভুট্টা চাষ করা হয়েছিল। এবার রবি মৌসুমের আবাদের লক্ষ্যমাত্রা ৩ শ ২০ হেক্টর, গতকালের তথ্য অনুযায়ী ১৫৫ হেক্টর ভুট্টা আবাদ হয়েছে । আগামী ১৫ মার্চের পর খড়ি মৌসুম শুরু হবে।

আলু উত্তোলনের পর জমিতে বাড়তি কোন সার না লাগায় ভুট্টা উৎপাদনে তেমন কোন খরচ হয় না কৃষকের। আলুতে প্রচুর পরিমানে সারের ব্যবহার হওয়ায়, ওই সার জমিতে থেকে যাওয়ায় আলুর জমিতে সাধারণত ভুট্টা ভালো উৎপাদন হয় বলে জানান কৃষকরা।

তাই তারা ভুট্টা চাষে দিন দিন ঝুকে পড়ছে। আগে আলু উত্তোলনের পর ওই সমস্ত জমিতে সাধারণত ধান, পাট ও তিল চাষ করতো কৃষক। কিন্তু পাটের চাহিদা কমে যাওয়ায় ধান ও তিল চাষে লাভবান না হওয়ায় আগ্রহ বাড়ছে ভূট্টা চাষে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, গজারিয়া উপজেলায় কৃষি জমির গুলোর আলু উঠতে শুরু করেছে। আলু উঠানোর পরেই কৃষক জমিগুলোতে আইল করে ভূট্টা আবাদ শুরু করেছেন।

স্থানীয় কৃষকরা বলেন, আলু আবাদের পর ভুট্টা আবাদে আর সার ও জমি চাষ দিতে হয় না। শুধু আইল করে বীজ পুতে ভুট্টা চাষ করা যায়।

ভূট্টা চাষি উপজেলার ইমামপুর ইউনিয়নের বাঘাইকান্দি গ্রামের কৃষক জসিম প্রধান (৪০) বলেন, আমরা আগে আলুর পর ধান, পাট ও তিল চাষ করতাম। কিন্তুু এখন ভুট্টা চাষ করে লাভবান হচ্ছি। আগে ১ একর জমিতে ধান চাষ করলে ১৫ থেকে ১৬ হাজার টাকা লাভ হতো।

অনেক বছর ধান বানের পানিতে ভেসে যায়। এখন ভুট্টা চাষ করে প্রতি একরে ২৫ থেকে ২৬ হাজার টাকা লাভ হয়। সরকারি সহায়তায় ও পরামর্শ পেলে আর ভালো ভুট্টা চাষ করতে পারবো। কৃষক জসিম প্রধান আরো বলেন,

আমার নিজস্ব কোন জমি নেই। আমি প্রতি বছর গ্রামের পাশের ২ থেকে ৩ কানি জমি বর্গা নিয়ে চাষ করি। ভুট্টা আবাদে লাভ হয়। তাই কয়েক বছর যাবৎ ভূট্টা চাষ করছি।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা তৌফিক আহমেদ নূর জানান, এ বার রবি মৌসুমে এ পর্যন্ত ১ শ ৫৫ হেক্টর জমিতে ভুট্টা আবাদ করা হয়েছে। কৃষির রবি মৌসুম আগামী ১৫ মার্চ পর্যন্ত। আমাদের রবি মৌসুমের লক্ষ্যমাত্রা ৩২০ হেক্টর। আলু উঠার পর বাকি জমিতে ভুট্টা আবাদ হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here