শ্রীনগরে লাথিতে গর্ভের সন্তান নষ্ট, গ্রেফতার -১

 

mnews-groupশ্রীনগর প্রতিনিধি

শ্রীনগর উপজেলা বাঘড়া ইউনিয়নে এক গর্ভবতী নারীকে পেটে লাথি মেরে গর্ভের সন্তান নষ্ট হওয়ার অভিযোগ উঠেছেন । মঙ্গলবার ১১ ই মে শ্রীনগর থানায় মামলা হয়েছে পুলিশ ১ জনকে গ্রেফতার করেছে। যানাগেছে গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭ টায় বাঘড়া ইউনিয়নের ছত্রভোগ এলাকার জয়নাল মিঞার ছোট মেয়ে চার মাসের গর্ভবতী বৃষ্টি আক্তার (২০) কে পূর্ব শত্রুতার জেরধরে একই এলাকার রিপন ফকির নামের এক স্থানীয় সন্ত্রাসী লাঠি দিয়ে মারধোর করেন।

এক পর্য়ায়ে পেটে লাথি মারলে সে জ্ঞান হারিয়ে ফেলে। পরে আত্মীয় স্বজনরা তাকে হাসপাতালে নিলে ডাক্তার পেটের সন্তানকে মৃত ঘোষনা করেন। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, নুরু ফকিরের ছেলে রিপন ফকির শীর্ষ সন্ত্রাসী তাজলের সহযোগী। সে আরও কয়েকজন সন্ত্রাসী নিয়ে ঘটনার দিন জয়নাল মিঞার বাড়িতে আক্রমণ করেন। বাড়ির ছোট বড় নারী পুরুষ সকলকে নির্বিচারে লাঠি দিয়ে মারে।

বৃষ্টিকে প্রথমে লাঠি দিয়ে আঘাত করে একপর্যায়ে পেটে লাথি মেরে মাটিতে ফেলে দেয় । সে চলে যাওয়ার সময় এই বলে হুমকি দেয় যে, যারা আমাকে থামাতে আসবে এবং জয়নালের পক্ষে কথা বলবে তাদেরকেও এভাবে মারবো। ভুক্তভোগী বৃষ্টির মামা মিজানুর রহমান জানান রিপন বাহিনী সারা রাত আমার ভাগীনির বাড়ি থেকে কাওকে বের হতে দেয় নাই, চিকিৎসা নিতে দেরি হওয়ায় আমার ভাগিনী গুরুতর অসুস্থ হয়ে পরেছে।

সে এখন ঢাকা মিডফোর্ট হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এ বিষয়ে শ্রীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ হেদায়াতুল ইসলাম ভুঞার কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এ ব্যাপারে১২জনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। প্রধান আসামী রিপন ফকির গ্রেপ্তার হয়েছে ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here