গজারিয়ায় অপহরণের পর বাল্য বিয়ে

240505031_2979103098977592_5557177115849901497_nনিজস্ব প্রতিবেদক:

গজারিয়ায় দশম শ্রেণি শিক্ষার্থীকে প্রথমে অপহরণ। তারপরে আটক। এরপরে জোরপূর্বক বাল্য বিয়ে। অভিযোগে তীঁর পিকআপ ভ্যান চালক মো. ইমন মিয়ার দিকে।

মো. ইমন মিয়া গজারিয়া উপজেলার টেঙ্গারচর ইউনিয়নের মিরপুর গুচ্ছ গ্রামের মো. শাজাহান মিয়ার ছেলে বলে জানা গেছে।

১৬ আগস্ট স্কুল শিক্ষার্থী অপহরণ হয়। আর এ ঘটনার ৭দিন পর অথ্যাৎ ২৩ আগস্ট স্কুল শিক্ষার্থী পরিবারের কাছে ফিরে আসেন। এরপরে প্রকৃত ঘটনাটি স্কুল শিক্ষার্থী পরিবারের কাছে বিষয়টি খুলে বলেন।

ঘটনায় অপহৃতার পিতা বাদী হয়ে গত ১৮ আগস্ট সকালে গজারিয়া থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেন।

এদিকে জড়িত সন্দেহ গতকাল বৃহস্পতিবার ২৬ আগস্ট বিকালে একজনকে আটক করে গজারিয়া থানা পুলিশ। আটকের পর থেকে সেই ব্যক্তিকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ। মামলার প্রধান আসামি ইমনসহ অন্য আসামিরা এখনো পলাতক রয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস.আই সবুজ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here