মিরকাদিম পৌরবাসী বর্ধিত করে আপিলে সুযোগ (ভিডিওসহ)

IMG_1188মোহাম্মদ সেলিম ও সাগর মাহমুদ:

মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলার মিরকাদিম পৌরসভায় পৌরবাসীদের মাঝে হোল্ডিং ট্যাক্স প্রদানের জন্য নোটিশ পাঠানো হয়েছে। নতুন করে জরিপের পর এ নোটিশ প্রদান করে পৌর কর্তৃপক্ষ। আর এ নোটিশকে কেন্দ্র করে পৌর নাগরিকদের মাঝে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। মিরকাদিমে অতিরিক্ত পৌর কর নিয়ে নানা রকমের গুঞ্জন চলছে।

IMG_1194জানা যায়, সতেরো বছর পর নতুন জরিপে মিরকাদিম পৌরবাসী বহুগুনের হোল্ডিং ট্যাক্স এর নোটিশ পান। গত বছর যারা ১শ’৩২ টাকা ট্যাক্স প্রদান করেছেন। তাদের কাছে এবার ৭হাজার টাকার ওপরে ট্যাক্সের নোটিশ আসে। আর এ নিয়ে পৌরবাসী ক্ষুব্দ হয়ে উঠেছেন। নতুন এ করের কাগজপত্র নিয়ে সমাধানের লক্ষ্যে পৌরবাসীরা এখন পৌরসভার দিকে ছুটে যাচ্ছেন।

আগের মেয়র শহিদুল ইসলাম শাহিন ২০১৭ সালের দিকে নতুন এই করের জরিপ করান সমগ্র এ পৌর এলাকায়। গত নির্বাচনের আগে পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডে জরিপের বর্ধিত করের নোটিশ পৌরবাসীর কাছে পৌঁছে দেয় পৌর কর্তৃপক্ষ।

এরই মধ্যে পৌরসভার নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা হলে ভোটে পরাজয়ের ভয়ে সাবেক মেয়র শহিদুল ইসলাম শাহিন সেই নোটিশ প্রত্যাহার করে নেন বলে অভিযোগ উঠেছে। প্রতিটি বাড়ি বাড়ি গিয়ে সেই সময়ে করের নোটিশ তুলে আনা হয়। এমনটি খবর নিশ্চিত করেছেন বর্তমান মেয়র হাজি আব্দুস ছালাম।

মিরকাদিম পৌরসভার নির্বাচনকে সামনে রেখে সেই সময়ে নতুন কর আরোপের বিষয়টি থেমে থাকলেও বর্তমান মেয়র হাজি আব্দুস ছালাম মিরকাদিম পৌর নির্বাচনের সময় বর্ধিত কর পরিশোধ করেই নির্বাচনে অংশ নেন বলে জানা গেছে। অথচ পৌরসভার অন্যান্য পৌরবাসীরা সেই সময়ে ১৭ বছর আগের নির্ধারিত করই দিয়ে আসছে। এ বিষয়টি পৌর পরিচালনায় গুরুতর অনিয়ম বলে অভিযোগ উঠেছে।

মিরকাদিম পৌরবাসীরা বলেন, বর্তমান মেয়র হাজি আব্দুস ছালাম কেন ২০১৭ সালের কর জরিপের নোটিশ পৌরবাসীকে পাঠালেন? তিনি চেয়ারে বসার পর নতুন করে তার আদলে নতুন জরিপে নোটিশ পাঠালে পৌরবাসী স্বস্তি পেতো।

মিরকাদিম পৌরসভার মেয়র হাজি আব্দুস ছালাম বলেন, ২০১৭ সালের জরিপের করের নোটিশ পৌর বিধিমালা অনুযায়ি এবার পৌর নাগরিক কাছে পাঠানো হয়েছে।

পৌর নাগরিকরা আপিল করলে এ বিষয়ে রেয়াত পাবেন বলে তিনি জানান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here